বৃহস্পতিবার রাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন অভিনেত্রী মৌসুমী চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ে পায়েল ডিকি সিনহা। বেশ কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। এই খবর ছড়িয়ে পড়া মাত্রই শোকের ছায়া পড়ে অভিনেত্রীর অন্দরমহলে। পায়েল জুভেনাইল ডায়াবিটিসের রোগী ছিলেন। ২০১৭ থেকেই স্বাস্থের অবস্থার অবনতি ঘটেছিল তাঁর। 

আরও পড়ুনঃ প্রকাশ্য রাস্তায় নেমে এসেছেন 'অসুর', দেখুন তো চিনতে পারেন কিনা

মৌসুমী চট্টোপাধ্যায় ও জয়ন্ত মুখোপাধ্যায়ের দুই কন্যা, পায়েল ও মেঘা। পায়েলের বিয়ে হয় ডিকি সিনহার সঙ্গে। তবে কোথাও গিয়ে সেই সম্পর্ক বোধহয় দানা বাঁধছিল না শেষ পর্যায়। যার ফলে মৌসুমিকে হাইকোর্টে অভিযোগও দায়ের করতে হয়েছিল। ২০১৭ সালের এপ্রিল মাস থেকেই স্বাস্থ্য ভালো যাচ্ছিল না পায়েলের। বেশ কয়েকবার হাসপাতালে ভর্তিও হতে হয়েছিল তাঁকে।

২০১৮ সালে কোমায় চলে গিয়েছিলেন পায়েল। এরপরই তাঁকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যান তাঁর স্বামী ডিকি সিনহা। যদিও তারপর থেকে স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটা আরও বাড়তে থাকে। একসময় মৌসুমী ও তাঁর পরিবার দাবি করেন, বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে মেয়ের ফিজিওথেরাপি। চিকিৎসা করা হচ্ছে না সঠিক উপায়। এরপরই বছর ঘুরতে না ঘরতেই মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়েন পায়েল। বৃহস্পতিবার রাত ২ টো নাগাত মৃত্যু হয় পায়েল ডিকি সিনহার।