কয়েকদিন আগেই রাণুর গান ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। লতা কণ্ঠী রাণু মণ্ডলের গলা শুনে এক সময় স্টেশন চত্বরে লোকে হাতে এক টাকা কিংবা দুটাকা দিয়ে চলেযেত। সেই রাণু মণ্ডলের গান এখন ভারত খ্যাত। সোশ্যাল মিডিয়ায় তা ছড়িয়ে পড়া মাত্রই সকলের নজর কাড়েন এই শিল্পী। 

সুযোগ পান একটি দুর্গাপুজো কমিটির থিম সং গাইবার। কিন্তু সেখানেই থেমে থাকেনি রাণুর প্রাপ্তি। সেখান থেকে এবার বলিউডে পাড়ি দিলেন রাণু মণ্ডল। সুযোগ এসেছিল আগেই। ডেকে পাঠালেন হিমেশ রেশমিয়া। তাঁরই সঙ্গে এবার গান রেকর্ড করে সকলের নজর কাড়লেন রাণু। রেকর্ডিং-এর সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ারও করে নিলেন সুরকার তথা গায়ক।

 

 

গলায় ছিল সুর, তাকেই পাথেয় করে পথ চলা। এই গানে ছিল না কোনও রেওয়াজ, ছিল না কোনও প্রকার অনুশীলন। কেবল শুনেই মনে রাখতেন তিনি। যথা সময় অনর্গল গেয়েও ফেলতেন তা। আর সেই গান শুনেই মুগ্ধ আট থেকে আশি। তিনি নিজেও ভাবেননি কখনও একদিন তাঁর গান ভাইরাল হয়ে যাবে, তবে ভাগ্যে তেমনটাই ছিল। তাঁর গান ছড়িয়ে পড়া মাত্রই ডাক এল মুম্বইয়ের এক বেসরকারী টিভি শো থেকেও। 

গান গাইবার অনুরোধ আসতে থাকে আরও অনেক জায়গা থেকেই। তবে এবার দূর্গা পুজোর থিম সং-এ নজর কাড়তে চলেছেন তিনি। সম্প্রতিই সেই প্রস্তাবও পেয়েছিলেন তিনি। তা গ্রহণ করার পরই পার্কস্ট্রিটে সেরেছিলেন রেকর্ডিং। অর্জুন পুরের আমরা সবাই ক্লাবের হয়ে গান বাঁধলেন তিনিই। সারেগামাপা সংস্থা উপহার দিল একটি ক্যালভেরাও। এক সময় বিয়ে করে যে মেয়েরা মাকে ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন, তারাও ফিরল মায়ের কাছে।