রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সাহিত্যে নোবেল জয়ের পর বাঙালিকে প্রথম নোবেলের গর্ব এনে দিয়েছিলেন অমর্ত্য সেন। এরপর ১৯৯৮ সালে অমর্ত্য সেন, ২০০৬ সালে
মহম্মদ ইউনুসের পর এই বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেলেনঅভিজিৎ বন্দোপাধ্যায়। সত্যিই বাঙালীর কাছে এক গর্বের দিন। বিশ্ব গরীবি নিয়ে কাজের জন্য এইবছর তিন অর্থনীতিবিদকে নোবেল দেওয়া হয়েছে। তাঁরই মধ্যে একজন হলেন অভিজিৎ। এছাড়া তাঁর স্ত্রী-ও জিতেছেন নোবেল। অভিজিৎ-এর নোবেল প্রাপ্তি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন টলিউড থেকে বলিউডের অনেকেই। 

টুইটারে নিজের নিজের শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন টলিউড স্টার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তিনি অভিজিৎ এবং তাঁর স্ত্রী-কেও  শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। 

এছাড়া বলিউডের নামজাদা ব্যক্তিক্ত জাভেদ আখতারও জানিয়েছেন শুভেচ্ছা বার্তা তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে। তিনি লিখেছেন 'ভারত তথা বাংলা-কে শুভেচ্ছা, অর্মত্য সেন-এর পর তিনি নোবেল প্রাইজ জিতে তিনি আমাদের গর্বান্বিত করেছেন।'

টলিউডের পরিচালক সুমন ঘোষও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তিনিও প্রেসিডেন্সি কলেজের ছাত্র ছিলেন, স্বভাবতই তিনি নিজের কলেজের এক ছাত্রের নোবেল
জিতে নেওয়ার ঘটনাতে খুশি। তিনিও টুইট করে শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন।

বাংলার নন্দিতা দাসও শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন, এই বঙ্গ সন্তান-কে। টুইটারে শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন। 

এছাড়া টলিউডের অনিন্দ্য বন্দোপাধ্যায়ও জানিয়েছেন শুভেচ্ছা বার্তা। 

অভিজিৎ-এর ছোটবেলার স্কুলিং ছিল সাউথ পয়েন্ট, তারপর প্রেসিডেন্সি। সৃজিৎ মুখোপাধ্যায়-এর সঙ্গেও অভিজিৎ বিনায়ক বন্দোপাধ্যায়-এর অনেক মিল রয়েছে, তাঁরা একই স্কুল ও কলেজ থেকে পড়াশোনা করেছেন। সুতরাং তাঁর নোবেল প্রাইজের ঘটনাকে ঘিরে নস্ট্যালজিক টলিউডের অনেকেই।