বলিউডে সম্পর্কের প্রসঙ্গ উঠলেই রণবীর কাপুরের নাম উঠে আসে। বিটাউনের প্রথম সারির তিন নায়িকার সঙ্গেই সম্পর্কে জড়িয়েছেন রণবীর। এক সময়ে দীপিকা পাডুকোনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক বহু চর্চিত ছিল। কিন্তু সেই সম্পর্ক টেকেনি। অজব প্রেম কি গজব কাহানি ছবিতে অভিনয় করার সময়েই ক্যাটরিনার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে শুরু করেন রণবীর। দীপিকার সঙ্গে সম্পর্কে থেকেও তিনি নাকি প্রতারণা করার সময়ে হাতে নাতে ধরা পড়েছিলেন। অগত্যা সে সম্পর্ক আর টেকেনি। 

নতুন সম্পর্কে একসঙ্গে থাকাও শুরু করেন ক্যাট ও রণবীর। কিন্তু টানা ৫ বছর সম্পর্কে থাকার পরে সেটিও স্থায়ী হয়নি। এই ব্রেক আপের পরে রীতিমতো ভেঙে পড়েছিলেন ক্যাটরিনা। কিন্তু ঠিক কী কারণে ব্রেক আপ হয়েছিল, তা নিয়ে আজও আলোচনা হয়। একবার দেখে নেওয়া যাক, ঠিক কী কারণে রণবীর ক্যাটরিনার সঙ্গে ব্রেক আপ করেছিলেন- 

১) বিটাউনে প্রথমে কারণ হিসেবে এটাই চাউর হয়েছিল। শোনা যেত, একসঙ্গে বেড়াতে গেলেও, সময় কাটালেও এক ছাদের তলায় ঘর বাঁধতে রাজি ছিলেন না রণবীর। তিনি একা থাকতে চেয়েছিলেন নিজের মতো করে। কিন্তু ক্যাটরিনা মনে করতেন, বিয়ে করার পরিকল্পনা আছেই যখন, একসঙ্গে থাকতে ক্ষতি কী! এছাড়াও রণবীর নিজের পরিবারের খুব কাছের। তাই পরিবারের বাইরে অন্য কোথাও গিয়ে ঘর বাঁধতে রাজি ছিলেন না তিনি। 

২) বিটাউনে কানাঘুষো শোনা যেত, ক্যাটরিনা সম্পর্ক নিয়ে নাকি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেন। রণবীর কী করছেন, কোথায় যাচ্ছেন সমস্তের উপরই নাকি নজর রাখতেন তিনি। এমনকী, রণবীরের শ্য়ুটিং সেটেও তিনি নাকি পৌঁছে যেতেন। অন্যদিকে রণবীর সব সময়েই স্পেস পছন্দ করতেন। তাই ক্যাটরিনার এই আচরণ নাকি তাঁর পছন্দ ছিল না। শোনা যায়, দীপিকাও নাকি একই রকম করতেন। রণবীরের উপর নজর রাখার জন্য নাকি দীপিকা একজন লোককেও নিয়োগ করেছিলেন। তবে দীপিকা যে অকারণে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেন না, তা পরে স্পষ্ট হয়ে যায়। 

৩) এক সময়ে দীপিকাকে ছেড়ে ক্যাটরিনার সঙ্গে সম্পর্ক শুরু করেন রণবীর। পরে আবার সেই দীপিকাকে নিয়েই ক্যাট ও রণবীরের মধ্যে সমস্যা শুরু হয়।  তামাশা ছবির শ্যুটিংয়ের সময়ই নাকি দীপিকার সঙ্গে রণবীরের নতুন করে বন্ধুত্ব তৈরি হয়। আর এই বিষয়টাই পছন্দ ছিল না ক্যাটরিনার। এটিও একটি ব্রেকআপের কারণ হিসেবে শোনা যায়। 

৪) হৃতিক রোশনও নাকি এই সম্পর্কে ভেঙে যাওয়ার আরও একটি কারণ। জগ্গা জাসুসে রণবীর একটি স্টান্ট করছিলেন। সেই রকমই একটি স্টান্ট হৃতিক ব্যাং ব্যাং ছবিতে করেছেন। এই কথা বলাতেই রণবীর চটে গিয়েছিলেন। হৃতিকের সঙ্গে তুলনা তিনি সহজে নিতে পারেননি।