আত্মঘাতী বাহুবলী ছবির অভিনেতা মধু প্রকাশের স্ত্রী ভারতী। মঙ্গলবার হায়দরাবাদের বাড়িতে সিলিং ফ্যানে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন তিনি। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, মধু প্রকাশের জীবনযাপন নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই দুজনের মধ্যে ঝগড়াঝাটি লেগেই থাকত। 

মঙ্গলবার সন্ধে ৭.৩০টা নাগাদ জিম থেকে বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেন মধু প্রকাশ। থানায় এই ঘটনায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 

জানা যাচ্ছে মধুর জীবন যাপন, আচরণ এসব নিয়ে নাকি প্রায়ই দম্পতির মধ্যে কথা কাটাকাটি হতো। প্রতিদিনই প্রায় দেরি করে বাড়ি ফিরতেন অভিনেতা। এই নিয়ে তুমুল অশান্তি লেগে থাকত স্ত্রীর সঙ্গে মধুর। এমনকী এই  ঘটনার দিনও  মধুকে কাজ থেকে তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরতে অনুরোধ করেছিলেন ভারতী। সকাল ১০ টায় শ্যুটিং-এর জন্য বেরিয়ে যান মধু। স্ত্রী ফোনে আত্মহত্যার হুমকি দিচ্ছে দেখে আর তিনি ফোন ধরেননি।

ভারতীর সন্দেহ ছিল, মধু তাঁর এক সহ অভিনেত্রীর জন্য প্রতারণা করছেন। পুলিশ মধুর বয়ান নিয়েছে এবং ভারতীর দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছেন। 

২০১৫ সালে বিয়ে করেন মধু ও ভারতী। হায়দরাবাদের বাড়িতে একসঙ্গে থাকতেন দুজনে। এস এস রাজামৌলির ছবি বাহুবলীতে একটি ছোট চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন মধু প্রকাশ। এছাড়াও বেশ কিছু টেলি  ধারাবাহিকে অভিনয় করেন তিনি।