অসাবধানতার জের। করোনার গ্রাসে উরুগুয়ের জাতীয় ফুটবল দল। গোটা দলের মোট ১৬ জন সদস্য আক্রান্ত মারণ ভাইরাসে। যা রীতিমত চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে উরুগুয়ে দলের ম্যানেজমেন্টের কাছে। আপাতত দলের করোনা আক্রান্ত ৬ জন সদস্যের  শারীরিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। সকলেই রয়েছে আইসোলেশনে। চিকিৎসকরা দেভাল করছেন তাদরে। কিন্তু অসাবধানতার কারমে দলের এই পরিস্থিতির জন্য সমালোচিতও হচ্ছেন উরুগুয়ের ফুটবলার, কোচিং স্টাফরা।

আরও পড়ুনঃ৩৪ জন্মদিনে নতুন ভূমিকায় সুরেশ রায়না, নিলেন সামাজিক দায়িত্ব পালনের অঙ্গিকার

২০২২ কাতার বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব খেলতে গিয়ে কোভিড প্রটোকল মানেননি উুরুগুয়ের ফুটবলাররা। কলম্বিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচ জয়ের পর থেকেই একে একে সামনে আসে দলের প্লেয়ার ও সদস্যদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে করোনা পজিটিভ হয়েছিলেন ডিফেন্ডার মাটিয়াস ভিনা। তারপর করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে উরুগুয়ে দলের গোলরক্ষক রড্রিগো মুনজ ও তারকা স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজের। তারপর একে একে প্লেয়ার, সাপোর্টিং স্টাফ মিলিয়ে মোট ১৬ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসে। 

আরও পড়ুনঃবিয়ের আগেই বাবা হয়েছেন এই ক্রিকেটাররা, দেখে নিন তালিকায় কারা

গোটা ঘটনায় বেজায় চটেছে উরুয়ের প্রশাসন। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে যেখানে দেখা যাচ্ছে একটি পার্টিতে ৯ জন ফুটবলার স্বাস্থ্যবিধি না মেনে আনন্দ করছেন। পরে তাদের মধ্যে ৫ জনেরই করোনা পজেটিভ এসেছে। প্রোটোকল না মানায় উরুগুয়ে ফুটবল ফেডারেশনকে ১৫ হাজার মার্কিন ডলার জরিমানা করেছে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রক। এমন হটকারিতার জন্য মা চেয়েছেন উরুগুয়ে দলের কোচ ও সুয়ারেজ। সুয়ারেজ বলেছেন,'আমরা সবাই ভুল করেছি। টেস্টের ফল নেগেটিভ আসার ফলে আমাদের সুরক্ষার আপস করেছি এবং তারপর অনেকেই পজিটিভ হতে শুরু করেছে। আমরা ভুল করেছি।' তবে এমন কাণ্ডের ফলে সর্বত্র সমালোচিত হচ্ছেন উরুগুয়ের ফুটবলাররা।

আরও পড়ুনঃম্যাচের মাঝেই যৌনাঙ্গে একাধিকবার হাত প্রতিপক্ষ ফুটবলারের, অবকা কাণ্ড ইংল্যান্ডে, দেখুন ভাইরাল ভিডিও