প্রকাশিত হল কাতার বিশ্বকাপের সূচি। যোগ্যতা অর্জন পর্ব মিটলে মালুম হবে সম্পূর্ণ রূপরেখা। এখনও অবধি একটা ব্যাপার সকলের কাছে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে যে প্রতিদিন চারটে করে গ্রূপ পর্বের ম্যাচ খেলা হবে বিশ্বকাপে এবং গ্রূপ পর্ব শেষ হতে সময় লাগবে ১২ দিন। তার সঙ্গে সঙ্গে বিশ্বকাপের তারিখেও দেখা গেল অভিনবত্ব। ২১ শে নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ এবং তা চলবে ডিসেম্বর মাসের ১৮ তারিখ অবধি। বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবার প্রতিযোগিতাটি আয়োজিত হতে চলেছে এমন সময়ে। গ্রূপ পর্ব চলাকালীন দিনের প্রথম ম্যাচটি শুরু হবে ভারতীয় সময় দুপুর ৩.৩০ এ, দ্বিতীয় ম্যাচটি শুরু হবে ভারতীয় সময় সন্ধ্যা ৬.৩০ এ, তৃতীয় ম্যাচটি শুরু হবে ভারতীয় সময় রাত ৯.৩০ এ এবং দিনের শেষ ম্যাচটা আয়োজিত হবে রাত ভারতীয় সময় রাত ১২.৩০ টায়। দুটি সেমিফাইনালই আয়োজিত হবে ভারতীয় সময় রাত ১০ টায়। বিশ্বকাপ ফাইনালটি আরম্ভ হবে ভারতীয় সময় সন্ধ্যে ৬ টায়। 

আরও পড়ুনঃবিকিনিতে অনুষ্কা শর্মার হট ফটো শুট দেখে ক্লিন বোল্ড বিরাট কোহলি

ফিফা নিজেদের প্রকাশিত একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে যে যখন সমস্ত দল এবং তাদের গ্রূপ-বিন্যাস সম্পূর্ণ হয়ে যাবে তখন সমস্ত দিক বিবেচনা করে ম্যাচের টাইমিংয়ে সামান্য কিছু রদবদল করা হতে পারে। পুরো ব্যাপারটা সংক্রান্ত যে কোনও সিদ্ধান্ত বাড়িতে বসে যারা খেলা দেখবেন, কাতারের ফুটবলভক্ত এবং স্টেডিয়ামের অবস্থানের ওপর নির্ভর করে নেওয়া হবে বলে ফিফা তাদের সেই বিবৃতিতে জানিয়েছে। কাতার বিশ্বকাপই হতে চলেছে মধ্য-প্রাচ্যে আয়োজিত প্রথম বিশ্বকাপ। ৬০,০০০ দর্শকআসন বিশিষ্ট আল-বক্ত স্টেডিয়ামে প্রতিযোগিতার প্রথম ম্যাচটি আয়োজিত হবে। ফাইনালটি আয়োজিত হবে ৮০,০০০ দর্শকআসন বিশিষ্ট লুজালি স্টেডিয়ামে। 

আরও পড়ুনঃশুধু বিশ্বকাপই নয়, বাতিল হতে পারে ভারত-অস্ট্রেলিয়া টি২০ সিরিজও

আরও পড়ুনঃসেপ্টেম্বর মাসে বাতিল হতে পারে ভারত বনাম ইংল্যান্ড সিরিজ


রাশিয়া বিশ্বকাপ আয়োজিত হয়েছিল ৩২ দিন ধরে, কিন্তু কাতার বিশ্বকাপ আয়োজিত হবে ২৮ দিন ধরে। গ্রূপ স্টেজ এবং শেষ ষোলোর খেলাগুলির মধ্যে খুব বেশি সময়ের ব্যবধান থাকছে না। সমস্ত দলের ম্যাচগুলির মধ্যে ব্যবধান থাকবে তিন দিনের যা ফিফার মতে খেলোয়াড়দের একটি ম্যাচের ক্লান্তি কাটিয়ে ওঠার পক্ষে যথেষ্ট। ফিফার পরিকল্পনা আছে ২০২২ এর মার্চ অথবা এপ্রিল মাসে বিশ্বকাপের গ্রূপবিন্যাস সম্পূর্ণ করে ফেলার। সেই সময়ই জানা যাবে বিশ্বকাপের বাকি ৩০ টি দেশের পরিচয় এবং তারা কোন গ্রূপে অবস্থান করছে। এই বিশ্বকাপ অনেক অর্থে গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। ৩২ দেশের পরিচিত ফরম্যাটে এটাই শেষ বিশ্বকাপ। এর পরের ২০২৬ বিশ্বকাপ থেকে প্রতিযোগিতাটি হয়ে যাবে ৪৮ দলের।