বিশ্ব জুড়ে ক্রমশ ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে করোনা ভাইরাস। ইতিমধ্যেই বিশ্ব জুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১০ লক্ষ। মৃত্যু হয়েছে ৫০ হাজারেরও বেশি লোকের। দ্রুতহগতিতে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব জুড়ে বন্ধ সমস্ত স্পোর্টিং ইভেন্ট। বিশেষ করে ফুটবল ইন্ডাস্ট্রীতে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে কোভডি ১৯ ভাইরাস। স্থগিত রাখা হয়েছে প্রিমিয়ার লিগ, লা লিগা, ইতালিয়ান সিরি এ, ফ্রেঞ্চ লিগ, বুন্দাস লিগা, চ্য়াম্পিয়নস লিগ সহ একাধিক ফুটবল টুর্নামেন্ট। এইবছর হওয়ার কথা থাকলেও এক বছর পিছিয়ে গিয়েছে ইউরো,কোপা আমেরিকার মত টুর্নামেন্ট। একবছর পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে অলিম্পিক্সও। এবার বাড়ল ২০২৭ এশিয়ান কাপের আয়োজক দেশ বেছে নেওয়ার ডেড লাইন। 

আরও পড়ুনঃকরোনা লড়াইয়ে সচিন-সৌরভ-বিরাট-রোহিতদের সঙ্গে বৈঠক হবে মোদীর, জল্পনা তুঙ্গে

এশিয়ান কাপের আয়োজক দেশের বিডিংয়ের জন্য ৩১ মার্চ বৈঠক হওয়ার কথা ছিল সেই সময়সীমা বাড়িয়ে করা হল ৩০ জুন পর্যন্ত। এএফসি এক বার্তায় জানিয়েছে, ‘‘কোভিড-১৯-এর কারণে বিশ্ব জুড়ে যা অবস্থা তাতে সদস্য অ্যাসোসিয়েশনগুলোকে আরও কিছুটা সময় দিতে হবে। তাদের অনেকেই এই ভাইরাসের কারণে ভীষনভাবে আক্রান্ত। তাদের অভ্যন্তরিক বিষয়ের জন্য যথেষ্ট সময় দেওয়া প্রয়োজন।'' ফলে সামগ্রিক পরিস্থিতি বিচার করেই বৈঠক পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন।

আরও পড়ুনঃ'গোটা দেশের হয়ে ক্ষমা চাইছি', উত্তর-পূর্বের মানুষের কাছে হাতজোড় করলেন ভারত অধিনায়ক

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় ২ লক্ষ টাকা অনুদান দিলেন বাংলার আম্পায়াররা

২০২৩-এৎ এশিয়ান কাপ চিনে হওয়ার কথা। কিন্তু সৌদি আরব এখন বড় আকাড়ে স্পোর্টস ইভেন্ট আয়োজনে নিজেদের নামকে তুলে ধরছে ক্রমশ। ২০২৭-এর এশিয়ান কাপে তারাই বড় নাম হিসেবে উঠে আসতে পারে আয়োজনের জন্য। বিশ্ব জুড়ে যে ভাবে বন্ধ হয়ে রয়েছে ক্রীড়া ইভেন্ট তাতে ২০২৩ এশিয়ান কাপে কোয়ালিফাইং করাও সম্ভব হচ্ছে না আপাতত। ফলে এশিয়ান কাপের কোয়ালিফাইং রাউন্ড কবে থেকে শুরু করা যাবে তা নিয়ে সন্দিহান এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের কর্তারা।