আসন্ন মরশুমে ভালো বিদেশি খেলোয়াড়দের ধরে রাখার সাথে সাথে ভালো কিছু বাঙালি এবং কিছু তরুণ ফুটবলারদের দলে সই করানোর ব্যাপারেও প্রশংসনীয় উদ্দ্যোগ নিচ্ছে মোহনবাগান। শেখ সাহিল, শুভাশিস বোসের পর এক সপ্তাহে আরও দুজন গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলারের সাথে বেশ কিছু দিনের জন্য চুক্তি করে ফেলেছে এটিকে-মোহনবাগান। 

আরও পড়ুনঃমেসির দেশের তারকার জাদুতে ইউরোপা লিগের ফাইনালে ইন্টার মিলান

গত মরশুমের অন্যতম সফল ফুটবলার তরুণ সুমিত রাঠির সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি সারল এটিকে মোহনবাগান। এতে দলের শক্তি আরও বাড়বে বলেই মনে করছে কলকাতার ফুটবল প্রেমীরা। কলকাতার ক্লাবের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী সম্পর্ক জুড়তে পেরে খুশি ফুটবলার নিজেও। তাছাড়া ২৫ বছর বয়সী বাঙালি গোলকিপার অভিলাষ পালের সাথেও ৪ বছরের জন্য চুক্তি করে নিয়েছেন এটিকে-মোহনবাগান বোর্ড। 

আরও পড়ুনঃজোর কদমে চলছে আইপিএলের প্রস্তুতি, নেট দুনিয়া আগুন ঝরাচ্ছে হার্দিকের 'মাচো লুক'

 গত মরশুমের আইএসএলের সেরা উঠতি ফুটবলারের খেতাব জেতা সুমিত দলের সম্পত্তি হয়ে উঠবেন বলেই মনে করেন এটিকে মোহনবাগানের সমর্থকরা। আর অভিলাষ এটিকে তে এসেছিলেন ২০১৮-তে। আইজল এফ সি থেকে এটিকে তে যোগ দেওয়ার পর একবছর লোনে মোহনবাগানেও কাটিয়েছেন অভিলাষ। যদিও খেলার সুযোগ কোনও ক্লাবেই খুব একটা পাননি তিনি। আশা করা যাচ্ছে যে আসন্ন মরশুমে কিছুটা হলেও সুযোগ পেতে পারেন তিনি। 

আরও পড়ুনঃহন্যে হয়ে নিজের একটি গাড়ি খুঁজছেন সচিন, ভক্তদের কাছেও করলেন অনুরোধ

হাবাসের দলকে ২০১৯-এর আইএসএলে বিজয়ী করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন সুমিত রাঠি।  আরও পাঁচ বছর কলকাতায় ফুটবল খেলার সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত। তাঁর সঙ্গে দীর্ঘ সময়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হওয়ায় এটিকে মোহনবাগানকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন তরুণ ডিফেন্ডার। জানিয়েছেন, দলের জন্য নিজের সেরাটা দিতে তিনি প্রস্তুত। আর শুধু ভারতীয় ফুটবলে নাম করেই থেমে থাকতে চান না সুমিত। বাইরের দেশের বড়ো ক্লাবেও খেলতে চান তিনি। কিন্তু তার জন্য এখনও অনেক কিছু শিখতে হবে তা জানেন তিনি। আসন্ন মরশুমে এএফসি প্রতিযোগিতায় নামবে মোহনবাগান। সেখানে দলের প্রথম একাদশে সুযোগ পেলে ভালো পারফরম্যান্স করে বাইরের বড় দলগুলির নজরে পড়তে চান তিনি।