সচিন তেন্ডুলকরের গাড়ির প্রতি প্রীতির কথা সকলেরই জানা। ক্রিকেটে জীবনের শুরু থেকেই গাড়ির সখ ছিল সচিন তেন্ডুলকরের। তাই কেরিয়ারের গ্রাফ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সচিনের গ্যারাজে বেড়েছে একের পর এক গাড়ির সংখ্যাও। বর্তমানে সচিনের গ্যারাজে রয়েছে একাধিক বিলাস বহুল অত্যাধুনিক গাড়ি। সেগুলিকে বেশ যত্নেই রেখেছেন মাস্টার ব্লাস্টার। কিন্তু বিগত বেশ কিছু দিন ধরে একটি গাড়িকে হন্যে হয়ে খুঁজছেন সচিন তেন্ডুলকর। বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেও সেই গাড়িটির হদিশ পাচ্ছেন না তিনি। বাধ্য হয়ে অনুরাগীদের কাছে গাড়িটি খুঁজে দেওয়ার আবেদন করলেন সচিন।

আরও পড়ুনঃকার পরামর্শে ধোনিকে অধিনায়ক করেছিল বিসিসিআই, সামনে এল সেই তথ্য

না। সচিন তেন্ডুলকরের কোনও গাডি চুরি হয়ে যায়নি। গ্যারাজে একাধিক বিলাস বহুল গাড়ি থাকলেও, মাস্টার ব্লাস্টারের মন পড়ে রয়েছে তার কেনা প্রথম গাড়ির প্রতি। পেশাদার ক্রিকেট খেলার পর নিজের টাকায় প্রথম একটি মারুতি ৮০০ গাড়ি কিনেছিলেন মাস্টার ব্লাস্টার। কিন্তু বর্তমানে সেই গাড়িটি আর তার কাছে নেই। এক সাক্ষাৎকারে সচিন বলেছেন,'আমার প্রথম গাড়ি ছিল একটি মারুতি ৮০০। দুর্ভাগ্যের বিষয় হল, গাড়িটি এখন আর আমার কাছে নেই। গাড়িটি নিজের কাছে ফিরিয়ে আনতে পারলে খুব ভালো লাগবে। সুতরাং, আমার কথা যাঁরা শুনছেন, যদি কারও জানা থাকে গাড়িটি কার কাছে রয়েছে, নিঃসংকোচে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন।'

আরও পড়ুনঃমরার আগে ধোনির বিশ্বকাপের শেষ ছয়টা দেখতে চান সুনীল গাভাস্কার, জবাবে কি জানালেন ক্যাপ্টেন কুল

আরও পড়ুনঃ'অবসরের পর সারা রাত ভারতীয় দলের জার্সি পরে বসেছিলেন ধোনি, চোখে ছিল জলও'

জীবনের প্রথম কেনা গাড়ির প্রতি আবেগটাই আলাদা লিটল মাস্টারের। অনেক স্মৃতি জড়িয়ে রয়েছে সেই গাড়ির সঙ্গে। কোনও কারণে গাড়িটে তার কাছে নেই। অল্প বয়সে সেই আবেগ কাজ না করলেও, বর্তমানে গাড়িটির কথা খুব মনে পড়ে তার। বাড়ির গ্যারাজে একাধিক বিলাস বহুল গাড়ি থাকলেও, জীবনের প্রথম গাড়িটির অভাব বোধ করছেন ছোটে নবাব। তাই সেই মারুতি ৮০০ গাড়িটিকে খুঁজে বেড়াচ্ছেন সচিন তেন্ডুলকর। গাড়িটি যেভাবেই হোক নিজের কাছে ফেরাতে মরিয়া সচিন তেন্ডুলকর।