উইরোপের যে দেশগুলি করোনা বিধস্ত হয়েছিল তাদের মধ্যে অন্যতম স্পেন। তবে ধীরে ধীরে করোনা আতঙ্ক কাটিয়ে অনেকটাই স্বাভাবিক ছন্দে ফিরেছে স্পেন। প্রশাসনের অনুমতিতে ফিরতে চলেছে স্পেনের প্রাণ ফুটবলও। ইতিমধ্যেই লা লিগার সমস্ত প্লেয়ারদের করোনা ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়ে গিয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব লিগ শুরু করতে মরিয়া লা লিগা কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যেই অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে স্পেনের একাধিক ক্লাব। বল পায়ে মাঠে নেমে পড়েছে বার্সেলোনাও। পুরো দমে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে মেসি, সুয়ারেজ, গ্রিজম্যানরা।

আরও পড়ুনঃকরোনা যুদ্ধে নিজের ৮৬ বিশ্বকাপের জার্সি দান করলেন মারাদোনা

উসমান দেম্বেলে-সহ পাঁচ জনকে বাদ দিয়ে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে বার্সেলোনা।  তবে কড়াকডি করা হয়েছে প্লেয়ার, কোচ ও সাপোর্টিং স্টাফদের নিরাপত্তার বিষয়টি। অনুশীলনে বজায় রাখা হচ্ছে সামাজিক দুরত্ব। ট্রেনিং গ্রাউন্ডে ছ’জনের এক-একটা দল করে তিনটি জায়গায় অনুশীলন করানো হচ্ছে। যে কোনও ভাবে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে অনুশীলনের পরে ফুটবলারদের ড্রেসিংরুমে ফিরতে বা ক্লাবে স্নান করতে দেওয়া হচ্ছে না। অনুশীলন শেষ হলেই যে যার বাড়িতে গাড়ি ড্রাইভ করে ফিরে যাচ্ছেন। সাধারণত বার্সার অনুশীলনে লিয়োনেল মেসি আসেন লুইস সুয়ারেসের সঙ্গে এক গাড়িতে। এ বার কিন্তু সেটাও হচ্ছে না। দু’জনই বিচ্ছিন্ন ভাবে আসছেন অনুশীলনে, আলাদা গাড়িতে। স্পেন ফুটবল মহলের আশা, জুনের প্রথম সপ্তাহে বা মাঝামাঝি ফের শুরু করা যাবে লা লিগা। তবে কোনও অবস্থাতে স্টেডিয়ামে দর্শকেরা খেলা দেখার অনুমতি পাবেন না। দু’দলের সদস্যেরা এবং মাঠ-নিরাপত্তাকর্মী ধরে ২৫০ জনের বেশি উপস্থিত থাকবে পারবেন না। 

 

 

আরও পড়ুনঃপ্রয়োজনে পরিবেশ বান্ধব স্টেডিয়ামে হবে খেলা,ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ করতে মরিয়া দুই বোর্ড

আরও পড়ুনঃলকডাউনে ফের মানবিক সচিন, পাশে দাঁড়ালেন ৪ হাজার দুঃস্থ মানুষের

ক্লাবের অনুশীলনের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টও করেছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। যেখানে কাউকে দেখা যাচ্ছে গা ঘামাতে, কেউ ব্যস্ত শারীরিক সলরতে, কেউ আবার ব্যস্ত বল নিয়ে। অনুশীলনে স্বাভাবিক ছন্দেই দেখা গেল ফুটবেলর যাদুকর লিওনেল মেসিকে। ফিটনেস ট্রেনিংয়ের পাশাপাশি বল পায়ে শিল্পের ছোয়াও দেখিয়েছেন বার্সা সুপারস্টার। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে দীর্ঘদিন পর প্রিয় তারকাদের মাঠে দেখে খুশি বিশ্ব জুড়ে তাদের অনুগামীরা।