ইউরোপের কিছু দেশে করোনা ভাইরাসের দাপট কমলেও, পৃথিবীর অনেক দেশেই একেবারে পর্থম পর্যায়ে রয়েছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। তাদের মধ্যে আর্জেন্টিনা অন্যতম। পুরো দেশে তেমনভাবে করোনা থাবা না বসালেও, বুয়েনস আইরেসের একটি সীমানা লাগোয়া অঞ্চলে মারাত্মক রূপ ধারন করেছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ। ওই এলাকায় শুরু হয়ে গিয়েছে গোষ্ঠী সংক্রমণও। আক্রান্ত অঞ্চলের বহু মানুষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আক্রান্ত ও আক্রান্তদের কাছে যাওয়া মানুষদের গৃহবন্দি করে রেখেছে স্থানীয় প্রশাসন। যার ফলে করুণ দশা ওই এলাকার মানুষদের। তাদের পাশে দাঁড়াতে এবার এগিয়ে এলেন আর্জেন্টিনা তথা বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম লেজেন্ড দিয়াগো মারাদোনা। 

আরও পড়ুনঃপ্রয়োজনে পরিবেশ বান্ধব স্টেডিয়ামে হবে খেলা,ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ করতে মরিয়া দুই বোর্ড

করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে এবার নিজেকে জুড়লেন আর্জেন্টিনার ৮৬ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক।  ছিয়াশিতে মেক্সিকোয় বিশ্বকাপ জেতে আর্জেন্টিনা। সে বারের একটি ম্যাচে তাঁর পরা জার্সি দান করলেন দিয়াগো মারাদোনা। দান করা জার্সিতে মারাদোনা লিখলেন, ‘‘আমরা এই অবস্থা কাটিয়ে উঠতে পারব।’’ এই অবস্থা মানে করোনার মারাত্মক সংক্রমণে ছিন্নভিন্ন পরিস্থিতি। ইউরোপের বড় দেশগুলির পাশাপাশি আর্জেন্টিনাও যথেষ্ট উদ্বেগজনক জায়গায় রয়েছে। বুয়েনস আইরেসের সীমানা লাগোয় ওই অঞ্চলের মানুষদের  সাহায্য করতেই মারাদোনার দান করা জার্সি প্রথমে নিলাম হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরে লটারি করে তা দান করা হয় আক্রান্তদের পাশে থাকা মানুষদের। যাঁরা অসহায় মানুষদের দিয়েছেন মাস্ক ও ১০০ কিলো খাদ্য।

আরও পড়ুনঃমহেন্দ্র সিং ধোনির উদ্ভাবনী ক্ষমতা রিকি পন্টিংয়ের চেয়েও ভালো, মনে করেন হাসি

আরও পড়ুনঃলকডাউনে ফের মানবিক সচিন, পাশে দাঁড়ালেন ৪ হাজার দুঃস্থ মানুষের

মারাদোনার এই উদ্যোগের ফলে আপ্লুত স্থানীয় বাসিন্দারা। এলাকার বাসিন্দা মার্তা গুতিরেসের মন্তব্য, ‘‘আমাদের কত বড় উপকার যে হল তা কল্পনাও করতে পারবেন না দিয়েগো। এই দান অমূল্য। যতদিন বেঁচে থাকব ততদিন এই দান মনে রাখব। কারণ মারাদোনা আমাদের কাছে নিছকই একজন ফুটবলার নন। দেবতার মতো। যে ব্যক্তি তাঁর তারকাসুলভ ইমেজের বাইরেও সমাজের মানুষকে নিয়ে ভাবেন। তাঁদের পাশে থাকেন।’’ দুঃস্থদের পাশে দাঁড়িতে পেরে সন্তুষ্ট মারাদোনাও। প্রয়োজনে ফের তাদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন ফুটবলের রাজপুত্র। মারাদোনার এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে বিশ্ব জুড়ে তার অনুগামীরা।