ফুটবলার মেসির জন্ম বার্সেলোনার হাতে। ফুটবল জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত বার্সাতেই থেকে যাওয়ার কথাও বারবার বলেছেন লিও মেসি। কিন্তু বিগত করেয়ক মরসুম ধরেই ক্লাবের সঙ্গে বিশেষ করে বর্তমান বার্সা প্রেসিডেন্ট বার্তোমেউয়ের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না মেসির। তারমধ্যে চলতি মরসুমে লা লিগা থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগায় হতাশা জনক পারফরমেন্স। সেই বিষয়েও ক্লাবের ভূমিকার বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন মেসি। দীর্ঘ কয়েক দিন ধরেই মেসি বার্সা ছাড়তে পারে বলে জল্পনা চলছিল। অবশেষে মেসি যে যে বার্সা ছাড়া ইচ্ছে প্রকাশ করেছেন সেই খবরের সত্যতা স্বীকার করল ক্লাব কর্তৃপক্ষ। 

আরও পড়ুনঃবার্সা ছাড়ার ইচ্ছে প্রকাশ হতাশ মেসির, ক্লাব অফিসে গ্রেনেড ছুড়লেন ভক্তরা

মেসির বার্সা ছাড়ার খবর প্রকাশ্যে আসতেউ আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে ফুটবল বিশ্বে।বার্সা সমর্থকরা ইতিমধ্যেই ন্যু ক্যাম্পের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছেন। প্রেসিডেন্ট বার্তোমেউয়ের পদত্যাগের দাবিতে কার্যত উত্তাল বার্সেলোনা। এরই মধ্যে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বার্সোলোনার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জুয়ান লাপোর্তা। অর্থনৈতিক অচলাবস্থা থেকে রেহাই পেতেই মেসিকে বিক্রি করতে চাইছে বার্সেলোনা। প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আরও দাবি করেন, খেলা ও ক্লাবের অর্থনৈতিক অবস্থা, উভয় দিকেই নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে মেসিকে বলির পাঁঠা করতে চাইছেন বার্তোমেউরা। তিনি অবিলম্বে বার্সেলোনার বর্তমান প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ দাবি করেছেন।

আরও পড়ুনঃদীর্ঘ দু-দশকে লিও গড়েছেন অসংখ্য রেকর্ড, মেসি-বার্সা সম্পর্ক ইতির আবহে জেনি নিন সেই পরিসংখ্যান

সোশ্যাল মিডিয়ায় পরপর দুটি ট্যুইট করেও নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন প্রাক্তন বার্সা প্রেসিডেন্ট। জুয়ান লাপোর্তা লিখেছেন,'বার্তোমেউ ও তাঁর বোর্ডের অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত। খেলা ও আর্থিক দিক দিয়ে ক্লাবের যে দূরবস্থা তাঁরা তৈরি করেছেন, তা থেকে নিজেদের বাঁচাতেই মেসির মনোবল দুমড়ে দেওয়ার চেষ্টা চলছে। ওঁরা সরে গেলে মেসির বার্সেলোনায় থাকার সম্ভাবনা তৈরি হবে।’ পরে আরও একটি টুইটে তিনি লেখেন, ‘ওঁরা সুয়ারেজকে ফোনে জানায় যে, তাঁর কথা আর ভাবা হচ্ছে না। প্রেসিডেন্টের এটা অত্যন্ত কাপুরুষোচিত কাজ। খেলোয়াড়দের সঙ্গে এটা অত্যন্ত অসম্মানজনক ব্যবহার। এরকম আচরণ শুধু অভাবনীয়ই নয়, বরং ক্লাবের ভাবমূর্তিকেও ক্ষুন্ন করছে। আমার সন্দেহ হচ্ছে যে, ওরা মেসিকে বিক্রি করতে চাইছে, যেটা ঐতিহাসিক ভুল হয়ে দাঁড়াবে নিশ্চিত। হতভাগ্য বার্সেলোনা এমন অপরিণত কিছু লোকের হাতে রয়েছে।’

আরও পড়ুনঃতাঁর সারাই করা ব্যাট দিয়ে শাসন করেছেন ২২ গজ, বিপদে প্রিয় 'আশরাফ চাচার' পাশে দাঁড়ালেন সচিন

প্রাক্তন বার্সা প্রেসিডেন্টের এহেন বিস্ফোরক মন্তব্যের পরই মেসির বার্সা ছাড়ার কারণ নিয়ে তৈরি হয়েছে নয়া জল্পনা। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে তাহলে কি সত্যিই নিজেদের ব্যর্থতা ও আর্থিক দুরাবস্থার জন্য মেসিকে বিক্রি করছে বার্সা কর্তৃপক্ষ। আর মেসি কি সত্যিই বার্সা ছাড়তে চাইছে কিনা তা নিয়েও দানা বাঁধছে রহস্য। শুধু যে প্রাক্তন বার্সা প্রেসিডেন্টি বর্তমান ক্লাব প্রশাসকদের উপর ক্ষোভ উগড়ে দিচ্ছে এমনটাই, বার্তামোউয়ের বোর্ডের উপর আস্থা রাখতে পারছেন মেসি ও বার্সার অসংখ্য সমর্থক , অনুগামীরা।