প্রত্যাশা মতই ফিফার বর্ষ সেরা প্লেয়ার নির্বাচিত হলেন রবার্ট লিয়নডস্কি। দীর্ঘ ১০ বছরের বেশি সময় ধরে এই সম্মানে কার্যত একাধিপত্ব বসিয়েছিলেন লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। এবার সেই প্রথা ভেঙে ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম লেখালেন পোলিশ স্ট্রাইকার। স্বাভাবতই ফিফার বেস্ট প্লেয়ার অ্যাওয়ার্ড পেয়ে খুশি বায়ার্ন মিউনিখ তারকা। এবছর ব্যালন ডিঅর না হওয়ায় কিছুটা হতাশ হয়েছিলেন লিয়নডস্কি , তবে ফিফা বর্ষ সেরা প্লেয়ার হয়ে সেই আক্ষেপ মিটল তারকা স্ট্রাইকারের। 

গত বছর মাত্র ৪৮ ম্যাচে ৫৫টি গোল করেছেন রবার্ট লিয়নডস্কি। গত মরসুমে অংশ নেওয়া প্রত্যেক প্রতিযোগিতাতেই সর্বাধিক গোলদাতা হয়েছেন পোলিশ স্ট্রাইকার। এই তালিকায় আছে বুন্দেশলিগা, ডিএফবি পোকাল, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। বায়ার্নের জার্সিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন এই তিন প্রতিযোগিতাতেই। জিতেছেন উয়েফা সুপার কাপ, জার্মান সুপার কাপেও। বুন্দেশলিগায় টানা তৃতীয় বার তিনি টপ স্কোরার। ডিএফবি কাপে টানা চতুর্থ বার তিনি টপ স্কোরার। জার্মানির বর্ষসেরা ফুটবলার হয়েছেন তিনি। উয়েফা পুরুষদেরও বর্যসেরা ফুটবলার হয়েছেন।

বর্ষসেরা প্লেয়ার নির্বাচন নিয়ে কোনও বিতর্ক সৃষ্টি না হলেও, সেরা গোল রক্ষক ও সেরা কোচ নির্বাচন নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। কারণ ফিফার বর্ষসেরা গোলরক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন হয়েছেন ম্যানুয়েল নয়ার। কিন্তু ফিফার বর্ষসেরা একাদশে জায়গা পাননি তিনি। সেখানে রয়েছেন লিভারপুলের অ্যালিসন। অপরদিকে, বায়ার্নকে ত্রিমুকুট জিতিয়েও বর্ষসেরা কোচের পুরস্কার পাননি হ্যান্সি ফ্লিক। বর্ষ সেরা কোত নির্বাচিত হয়েছেন লিভারপুলের যুর্গ্যান ক্লপ।