জুন মাসেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল খেতাব। ছয় ম্যাচ বাকি থাকতেই লিগ জিতে গিয়েছিল রেডস-রা। কাল আনুষ্ঠানিক ভাবে ট্রফি হাতে পায় লিভারপুল। বুধবার ভক্তদের তৈরি থাকতে বললেন লিভারপুল ম্যানেজার যুর্গেন ক্লপ। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের আতংক কেটে গেলে ভক্তদের সাথে ট্রফিজয় উদযাপন করা হবে বলে জানান তিনি। এই মরশুমে নিজেদের শেষ হোম ম্যাচে ট্রফি হাতে পেয়ে গেলেন জর্ডান হেন্ডারসনরা। ম্যাচে চেলসি হারলো ৫-৩ গোলে। ঘরের মাঠে শেষ ম্যাচে জয় পেয়ে আনন্দিত ফুটবলাররা।

আরও পড়ুনঃঘরে বসে কমেন্ট্রি, করোনা আবহে হতে পারে আইপিএলের বড়সড় চমক

ক্লপ জানিয়েছেন ২০১৫ সালে পাঁচ বছর আগে তিনি সন্দেহ কাটিয়ে সবাইকে বিশ্বাস করতে বলেছিলেন। সেই বিশ্বাসের ফল আজ লিভারপুল পাচ্ছে। মরশুমের শেষ হোম ম্যাচ এভাবে জেতা যাবে তা ভাবেননি ক্লপ। চেলসি-কে অত্যন্ত ভালো দল বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। তাদের বিরুদ্ধে পাঁচ গোল একটি বড় ব্যাপার বলে জানিয়েছেন তিনি। ম্যাচ চলাকালীন মাথা গরম করে ফেলেছিলেন বেশ কয়েকবার, যা কখনোই কাম্য ছিল না বলে জানিয়েছেন ক্লপ। কিন্তু মরশুমের শেষ হোম ম্যাচ জিততে এতটাই মরিয়া ছিলেন যে সবসময় আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেননি তিনি। 

আরও পড়ুনঃএমএস ধোনি নয়,সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের যোগ্য উত্তরসূরি বিরাট কোহলি, নয়া বিতর্ক বিশ্ব ক্রিকেটে

আরও পড়ুনঃ'ব্যাট-বল কিছুই পারে না', নিজের দেশেই চরম অপমানের শিকার শাহিদ আফ্রিদি

প্রথমার্ধেই তিন গোলে এগিয়ে গিয়েছিল লিভারপুল। তারপর জিরুর গোলে ব্যবধান কমিয়েছিলেন চেলসি। দ্বিতীয়ার্ধে আবার এগিয়ে যায় লিভারপুল। তারপর আচমকা একটি গোল করিয়ে এবং নিজে একটি গোল করে চেলসিকে ম্যাচে ফেরানোর চেষ্টা করেন ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ। কিন্তু ম্যাচের অক্সলেড চেম্বারলিনের গোলে ৫-৩ ফলে ম্যাচ জয় নিশ্চিত করেন চেলসি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলতে গেলে নিজেদের শেষ ম্যাচে উলভসের বিরুদ্ধে হারা চলবে না চেলসির।