করোনা আক্রান্ত হওয়ার আগে হোক বা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়ার পরে, ভারতের বিরুদ্ধে বিষোদগার জারি রখেছেন পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদি। যা নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। কিন্তু এবার নিজের দেশেই চরম অপমানের শিকার হতে হল শাহিদ আফ্রিদিকে। একদা পাক ওপেনারকে ব্যাটিং-বোলিং কিছুই পারেন না বলে তীব্র আক্রণ করা হল। আর আক্রমণ করলেন অন্য কেউ না পাকিস্তানের অপর প্রাক্তন অধিনায়ক আমির সোহেল।

আরও পড়ুনঃনেপোটিজম বিতর্কে এবার কঙ্গনার পাশে দাঁড়ালেন ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারী

নিজের ইউটিউব চ্যালেন প্রাক্তন পাক তারকা আমির সোহেল বলেছেন,'১৯৯৮ সালে আমি অধিনায়ক ছিলাম। তখন নির্বাচকদের সঙ্গে বসে স্থির করেছিলাম বিশ্বকাপে আমরা এমন এক জন ওপেনার নেব, যে উইকেটে টিকে থাকার পাশাপাশি নতুন বলেও রান করতে পারবে। পরিকল্পনা মতই সেই সময় ওপেনার হিসেবে আমার পছন্দ ছিল মহম্মদ ইউসুফকে। কিন্তু নির্বাচকরা বেছে নেন শাহিদ আফ্রিদিকে।' পরে ঠিক ১৯৯৯ বিশ্বকাপের আগে নানা কারণে অধিনায়কত্বও হারান আমির সোহেল। ওয়াসিম আক্রমকে দেওয়া হয় অধিনায়কত্বের দায়িত্ব। বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান সঙ্গে লেগ স্পিনার -অলরাউন্ডার হিসেবেই পরিচিত বুম বুম আফ্রিদি। কিন্তু নিরানব্বই-এর বিশ্বকাপে তার কানাকড়িও দেখা যায়নি আফ্রিদির পারফরমেন্সে। ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপে সাত ইনিংসে ব্যাট করে আফ্রিদি মোট ৯৩ রান করেছিলেন।

আরও পড়ুনঃএবার গ্রেগ চ্যাপেলকে সপাটে দিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

আরও পড়ুনঃআইসিসিকে তোপ শোয়েবের, আইপিএলকে জায়গা করে দিতেই বাতিল হয়েছে টি২০ বিশ্বকাপ

আফ্রিদির সমালোচনা করে আমির সোহেল আরও বলেছেন,'লো বাউন্সিং উইকেটে ও দারুন খেলতে পারে, কিন্তু পরিস্থিতি যখন প্রতিকূল থাকে তখন সে না পারে ব্যাটিং, না পারে বোলিং। ওয়াসিম আক্রমের বদলে নিরানব্বই  বিশ্বকাপে আমি যদি অধিনায়ক থাকতাম তাহলে ওপেনার হিসেবে মোহাম্মদ ইউসুফকে নিতাম।' নিজের দেশে এহেন শিকার বএর আগে আফ্রিদিকে হতে হয়েছে কিনা তা জানা নেই। কিন্তু আমির সোহেল যেভাবে আফ্রিদিকে ব্যাট-বল কিছুই পারেনা বলে আক্রমণ করেছেন, তাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হতে হচ্ছে বুমবুমকে।