আর্জেন্টিনার ২০২০-র বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের প্রথম খেলায় খেলতে পারবেন না লিওনেল মেসি। চলতি বছরের কোপা আমেরিকা প্রতিযোগিতায় কোপা আমেরিকা সংগঠনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করার জন্য নির্বাসিত করা হয়েছে তাঁকে। শুধু তাই নয়, তাঁকে ১৫০০ মার্কিন ডলার ফাইনও করেছে কনমেবল।

৬ই জুলাই চিলি-র বিরুদ্ধে খেলাতে রেফারিদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন মেসি। কোপা আমেরিকা সংগঠনের বিরুদ্ধে 'দুর্নীতি'-র অভিযোগ এনেছিলেন। বলেছিলেন ব্রাজিলের যাতে জেতে তার জন্যই কোপা আমেরিকার নকশা করা হয়েছে। সব সিদ্ধান্তই ব্রাজিলের পক্ষেই গিয়েছে। আর্জেন্টিনা ২০১৯-এর কোপাতে চিলিকে ২-১ গোলে হারিয়ে তৃতীয় স্থান পেলেও, সেই ম্য়াচে লাল কার্ড দেখেন তাদের তারকা ফুটবলার মেসি। তৃতীয় স্থানের মেডেল নিতেও তিনি অস্বীকার করেন। তাঁর এই আচরণই মেনে নিতে পারেনি কোপা সংগঠকরা। 

মেসির করা মন্তব্য নিয়ে আর্জেন্টিনার ফুটবল ফেডারেশন কিছু না বললেও পরে তাঁর মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছিলেন লিওনেল। তবে কাজ হয়নি তাতে। কোপা আমেরিকাতে লাল কার্ড দেখার জন্য শাস্তি হিসাবে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জনকারী প্রথম খেলায় খেলতে পারবেন না মেসি। মাঠে তাঁর আচরণ নিয়ে মেসি এবার কতটা সচেতন হন সেটাই দেখার।