ইতালি জুড়ে করোনা আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়া ও জুভেন্তাসের প্রথম প্লেয়ার হিসেনে ড্যানিয়েল রুগানির করোনা আক্রান্ত হওয়ার পরই কোয়ারেন্টাইনে গিয়েছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। পরে সি আর সেভেনের করোনা টেস্ট হলেও তা নেগেটিভ আসে। কিন্তু নিজের কর্তব্য থেকে পিছিয়ে আসেননি পর্তুগীজ তারকা। পর্তুগাল সরকারকে সাহায্য করার জন্য ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৯ কোটি টাকা দান করেছিলেন রোনাল্ডো। সেই সঙ্গে এজেন্ট জর্জি মেন্ডেসের সঙ্গে তিনি মেডিক্যাল দ্রব্যসামগ্রী দান করেন। পর্তুগালের সাও জাও হাসপাতালে দু’লাখ গাউন দেন। সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে ভেন্টিলেটরে থাকা মানুষদের যাবতীয় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন তিনি। এছাড়াও ইতালির মানুষদের পাশে দাঁড়াতে ও নিজের বর্তমান ক্লাব জুভেন্তাসকে বাঁচাতে নিজের বেতন থেকে ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৩২ কোটি টাকা দেন রোনাল্ডো। 

আরও পড়ুনঃকরোনা যুদ্ধে ৮০ লক্ষ টাকা দিলেন রোহিত শর্মা, যা ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বাধিক

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় এবার এক কোটি টাকা দিলেন বক্সার মেরি কম

বর্তমানে গোটা বিশ্বের মতই গৃহবন্দি রয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। হোম কোয়ারেন্টাইনে সন্তানদের সঙ্গে কোয়ালিটি সময় কাটানোর একটি ছবি পোস্ট করে অনুরাগীদের জন্য বার্তা দিলেন পর্তুগিজ ফুটবলের পোস্টার বয় ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। সোমবার সোশ্যাল মিডিয়ায় গৃহবন্দি অবস্থায় তিন সন্তানের সঙ্গে খোশমেজাজে একটি ছবি পোস্ট করেন জুভেন্তাস তারকা। সেখানে অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে, পৃথিবীর মানুষের উদ্দেশ্যে কিছু বার্তা লেখেন রোনাল্ডো। হতাশ নয় বরং কৃতজ্ঞ থাকুন। রোনাল্ডোর আবেদন ছিল খানিকটা এমনই। রোনাল্ডো এদিন লেখেন, ‘কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে চলেছে গোটা বিশ্ব। কিন্তু আমাদের পরিবার, আমাদের স্বাস্থ্য, আমাদের প্রিয়জনের প্রতি আমাদের দায়িত্বশীল থাকতে হবে। তাই বাড়িতে থাকুন এবং পৃথিবীজুড়ে যে সকল চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীরা মানুষের সেবার কাজে নিয়োজিত তাদের সহযোগীতা করুন।

 

আরও পড়ুনঃকরোনার কঠিন পরিস্থিতিতে এগিয়ে এলেন পাহাড়ি বিছে, শ্রমিকদের জন্য খুলে দিলেন বাড়ির দরজা

পরিবারের সঙ্গে সি আর সেভেনের সময় লকাটানোর ছবি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে সোশাল মিডিয়ায়। এই প্রথম নয়, এর আগেও একাধিকবার সামাজিক সচেতনতার বার্তা দিয়েছেন রোনাল্ডো। করোনা ভাইরাসকে আটকাতে সকলকে ঘরে থাকার, সচেতন থাকার ও সুস্থ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। পরিবারের সঙ্গে প্রিয় তারকার খোশমেজাজে ছবি দেখে আতঙ্কের মধ্যেও কিছুটা খুশি রোনাল্ডো অনুগামীরা।