চলতি মাসেই বিদেশ থেকে ফিরে কোয়ারেন্টাইন ভাঙার অভিযোগ উঠেছিল বক্সার মেরি কমের ভেঙে। কোয়ারেবন্টাইন ভেঙে রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়েছিলেন মেরি। প্রকাশ্যে বেরিয়েছিল সই ছবি। যার দরুণ কম সমালোচনার মুখে পড়তে হয়নি ৫ বারের বিশ্বজয়ী বক্সারকে। দেশের বিপদের সময় মেরির সচেতনতাবোধ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন নেটিজেনরা। এবার সেই করোনার বিরুদ্ধেই লড়াইয়ে এগিয়ে এলেন মেরি কম। জবাব দেওয়ার চেষ্টা করলেন তার সমালোচকদের।

আরও পড়ুনঃকরোনার জের, প্রশ্নের মুখে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজ

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশের জাতীয় সংকটে বক্সার মেরি কম তাঁর সাংসদ তহবিলের উন্নয়ন খাতে থেকে ১ কোটি টাকা দান করেছেন। ভারতীয় বক্সিং জগতে কিংবদন্তি মহিলা বক্সার ছাড়াও দেশের রাজনীতে রাজ্যসভার সাংসদ হিসেবে মেরির আরও একটি পরিচয় রয়েছে। একইসঙ্গে বারংবার সচেতনতার বার্তাও দিয়েছেন টোকিও অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জনকারী। ঘরে থাকুন, দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ার প্রথম দিন থেকেই এই বার্তাই দিয়ে এসেছেন ভারতীয় বক্সার।এবার করোনা যুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী মোদীর ত্রাণ তহবিলে উজার হাতে দান করলেন মানবিক মেরি কম। সেই সঙ্গে দেশবাসীকে তাঁদের সাধ্যমত সাহায্য করে করোনা মোকাবিলার জন্য অনুরোধ করেছেন। দেশের হয়ে পদক জেতার জন্য এতদিন বক্সিং গ্লাভস হাতে রিংয়ে নেমেছেন। এবার ঘরে থেকে দেশের জাতীয় সংকটের যোদ্ধা মেরি কম সরকারকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন। 

আরও পড়ুনঃঘোষিত হল অলিম্পিকের নতুন সময়সূচি, শুরু পরের বছর ২৩ জুলাই, শেষ ৮ অগাস্ট

আরও পড়ুনঃটেনিস থেকে বিশ্রাম, করোনা যুদ্ধে দরীদ্রদের মুখে অন্ন তুলে দিচ্ছেন কেটি সোয়ান

উল্লেখ্য এর আগে আর এক সাংসদ ক্রিকেটার, বিশ্বকাপ জেতা ভারতীয় দলের প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীরও সাংসদ তহবিল থেকে ১ কোটি দান ও এক মাসের বেতন দান করেছেন। আর এবার সাংসদ হিসাবে ১ কোটি টাকা দান করে, তিনি যে মানুষের সঙ্গে আছেন তা বুঝিয়ে দিলেন মেরি কম। শুধু মেরিই নয়, এর আগে একাধিক ভারতীয় অ্যাথলিট দেশের বিপদের সময় সরকারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। সেই তালিকায় রয়েছেন বজরং পুনিয়া, হিমা দাস সহ অন্যান্যরা। তবে অ্যাথলিটদেপ মধ্যে সব থেকে বেশি অর্থ এক কোটি টাকা দান করলেন মেরি কম। মেরির উদ্যোগকে সাধুবাদ জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে। পাঁচ বারের বিশ্বজয়ী বক্সারকে কুর্নিশ জানিয়েছেন দেশ তথা বিশ্ব জুড়ে মেরির  অনুগামীরা।