কোনও বিষয় তিনি ফেরে রাখতে চান না। যে কোনও সমস্যার দ্রুত সমাধান করতে চান, আইএফএ সচিবের চেয়ারে বসে এই ইচ্ছেটুকু অন্তত দেখিয়েছেন জয়দীপ মুখোপাধ্যায়। আর তাই সোমবারের ম্যাচে রেফারি নিগ্রোহ কান্ডে বুধবার রাতের মধ্যেই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিল আইএফএ। বুধবার দুপুরের ম্যাচ রেফারি ও কমিশনারের রিপোর্ট জমা পরে আইএফএ অফিসে। রাতেই ডিসিপ্লিনারি কমিটির বৈঠক ডেকে এই অধ্যায় শেষ করে দিল আইএফএ। বৈঠকে ডাকা হয়েছিল অভিযুক্ত লাল হলুদ ফুটবলার ডিকা, মেহতাব, কোলাডোদেরও। রেফারিকে নিগ্রোহ করার অপরাধে এক ম্যাচের নির্বাসন ও এক লক্ষ টাকা জরিমান করা হয় ডিকা ও মেহতাবকে। জরিমানার টাকা ৭২ ঘন্টার মধ্যে জমা না দিলে এক বছর নির্বাসন হবে বলেও জানিয়েছে আইএফএ। এর পাশাপাশি সেদিনের ঘটনায় নাম জড়িয়েছিল ইস্টবেঙ্গল দলের ম্যানেজার দেবরাজ চৌধুরী ও গোলকিপার কোচ অভ্র মণ্ডলেরও। এই দু’জনকে এক বছরের জন্য নির্বাসন দিল বাংলা ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা। তবে সেদিনের রেফারি নিগ্রোহ বা পিয়ারলেস গোলকিপার অরূপ দেবনাথের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করার করা কোলাডোকে শাস্তি দেওয়া হল না। শুধু সতর্ক করেই স্প্যানিশ ফুটবলারকে ছেড়ে দিল আইএফএ।

এদিকে লাল হলুদ ফুটবলারদের আচরণে ক্ষুব্ধ ক্লাব কর্তারা। মাঠেই সেদিন ম্যানেজার দেবরাজ চৌধুরীকে ধমক দিতে দেখা যায় শীর্ষ কর্তা দেবব্রত সরকারকে। এদিন ক্লাবের বৈঠকে তিনি বলেন, গোটা ঘটনায় ক্লাব লজ্জিত। আইএফএ যা শাস্তিই দিক,ক্লাব সেটা মেনে নেবে। পাশাপাশি মরসুমের দল গঠন নিয়েও যে ক্লাব সন্তুষ্ট নয় সেটা ইনভেস্টার সংস্থার প্রতিনিধিকে জানিয়ে দেওয়া হয়। কোচের সঙ্গেও কথা বলতে চান ক্লাব কর্তারা। 

এই পরিস্থিতির মধ্যেই বৃহস্পতিবার ঘরের মাঠে কালীঘাট এমএসের বিরুদ্ধে নামতে হবে ইস্টবেঙ্গলকে। ম্যাচের আগের দিন ফুটবলারদের বিশ্রাম দিতে অনুশীলন কারননি গার্সিয়া। বরং ভিডিও ক্লাসে ফুটবলারদের ভুল ভ্রান্তি ধরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু কালীঘাট ম্যাচ নিয়ে রাত পর্যন্ত যে পরিকল্পনা তিনি করেছিলেন সেটা কিছুটা হলেও ধাক্কা খেলা। কারণ আইএফএ ডিকাদের শাস্তি ঘোষণা করার পর দলের প্রথম এগারো নিয়ে নতুন করে পরিকল্পনা সাজাতে হবে আলেহান্দ্রোকে।