ইস্টবেঙ্গল তাঁবু থেকে এলো নতুন খবর। গত কয়েকদিন ধরে ঝিমিয়ে পড়া লাল-হলুদের সমর্থকদের মধ্যে নতুন আশার আলো হিসেবে দেখা গেল এই খবর। আগামী ভারতীয় ফুটবল মরশুম, যা খুব সম্ভবত নভেম্বর মাস থেকে শুরু হতে চলেছে, সেখানে লাল-হলুদে কোচ হিসেবে যোগ দিলেন ফ্রান্সিসকো হোসে ব্রুটো দ্য কোস্টা। যদিও মনে করা হচ্ছে লাইসেন্সিং প্রসেসে একজন এএফসি প্রো লাইসেন্স ধারী কোচ-এর অস্তিত্ব দেখানো টা জরুরি যার জন্য তড়িঘড়ি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। পরে কোনও হাই-প্রোফাইল কোচ এলে ব্রুটো দ্য কোস্তা-কে কাজ করতে হবে সহকারী কোচ হিসেবে এমন শর্তেই লাল-হলুদে আসছেন তিনি। 

আরও পড়ুনঃরাফাল যুদ্ধবিমানকে দেশে স্বাগত জানালেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা

যদিও বাঙালিদের কাছে ইনি কিছুটা অপরিচিত, কিন্তু ভারতীয় ফুটবল সার্কিটে যথেষ্ট পরিচিত মুখ ফ্রান্সিসকো। গোয়ানিজ এই কোচ এককালে ভারতীয় অনুর্ধ্ব ১৪, ১৭ ও ১৯ দলের সহকারী কোচ ছিলেন। এএফসি প্রো এবং এ লাইসেন্সপ্রাপ্ত এই ভারতীয় কোচ ২০১৬ সালে নর্থইস্ট ইউনাইটেডে নিলো ডিংগাডা-র সহকারী কোচের ভূমিকা পালন করেছেন। এর পরে তার সাথেই ২০১৭ সালে মালয়েশিয়ার জাতীয় দলের সহকারী কোচের ভূমিকায় ছিলেন। ইস্টবেঙ্গলই প্রথম দল যেখানে তিনি প্রধান কোচ হিসেবে যোগ দিয়েছেন। 

আরও পড়ুনঃক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ খেলা হচ্ছে না ৫ প্রোটিয়া ক্রিকেটারের

আরও পড়ুনঃব্রডের কৃতিত্বের জন্য তাকে অভিনন্দন জানালেন যুবরাজ ও সচিন

ভারতীয় ফুটবলের যুবস্তরে ফ্রান্সিসকো একেবারে পরিচিত মুখ। একাধিক আইএসএল-এর ফ্র‍্যাঞ্চাইজি অভিজ্ঞতাপূর্ণ এই কোচকে নিতে আগ্রহী ছিলেন। কিন্তু সেখান থেকে দাড়িয়ে ইস্টবেঙ্গলে সই করলেন তিনি। এই ঘটনার ফলে ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলার সম্ভাবনা কিন্তু উড়িয়ে দেওয়া যায় না। চাইবেন না। সুতরাং সম্ভাবনা এখনও রয়েছে। তবে কি শেষ পর্যন্ত আইএসএলে খেলবে ইস্টবেঙ্গল?  জল্পনা বাড়ল আবারও।