মেসি এবং বার্সেলোনা ম্যানেজমেন্টের সম্পর্ক যে একদিন এই জায়গায় পৌঁছবে তা স্বপ্নেও ভাবতে পারেননি বার্সেলোনা ভক্তরা। দুই পক্ষের মধ্যে যেন রীতিমতো ঠান্ডা লড়াই চলছে। নতুন নতুন চাল দেওয়ার ব্যপারে কেউই কম যাননা। একে অপরকে মাত দেওয়ার আপ্রান চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দুই পক্ষ। এর মধ্যে এই ঘটনায় জড়িত হয়ে গেল লা লিগা কর্তৃপক্ষ। 

 বার্সেলোনা তাদের ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড়কে রিলিজ ক্লজের অঙ্কে আটকে রাখতে চাইছেন। অপরদিকে লিওনেল মেসি নিজের সিদ্ধান্তে অনড়, বার্সেলোনা ছেড়ে অন্য ক্লাবে যাওয়ার ব্যপারে তিনি এখনও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ বলে জানা যাচ্ছে।  বার্সেলোনায় যে তিনি একেবারেই থাকতে চান না, সেটা বোঝাতেই এবার বার্সেলোনার প্রথম দিনের অনুশীলন বয়কট করেছেন মেসি, এমনটাই ধারণা করা হচ্ছে। প্রতি মুহুর্তে তার না থাকার সম্ভাবনা প্রকট হচ্ছে। তবে লা লিগার তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে অন্য কোনও ক্লাব মেসিকে নিতে চাইলে ৭০০ মিলিয়ন ইউরোর রিলিজ ক্লজ দিয়েই কিনতে হবে তাদের। 

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমগুলিতে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ফ্যাক্সের মাধ্যমেই লিওনেল মেসি তাঁর বর্তমান ক্লাব বার্সেলোনাকে অনুশীলনে যোগ না দেওয়ার কথা এবং কারণ জানিয়ে দেবেন দ্রুত। এক্ষেত্রে সেই ব্যুরোফ্যাক্সে সই থাকবে একাধারে মেসির বাবা এবং এজেন্ট জর্জ মেসির। প্রসঙ্গত, সোমবারের আগেই আগামী মরসুমের জন্য অনুশীলন শুরু করছে বার্সেলোনা। ভিদাল, বুস্কেটস-দের সেই অনুশীলনে উপস্থিত দেখা গেলেও দেখা পাওয়া যায়নি মেসির। 

রবিবার দলের ফুটবলারদের করোনা পরীক্ষায় সময়েও মেসির অনুপস্থিতি তার অনুশীলনে না নামার সম্ভাবনাকে বাড়িয়ে দিয়েছিল। বেশ কয়েকজন ভক্ত অনুশীলনে নিজেদের প্রিয় তারকাকে দেখার অপেক্ষা করছিলেন, কিন্তু শেষপর্যন্ত হতাশ হয়েই ফিরতে হয় তাদের। শেষ পর্যন্ত যদি কোর্টে যায় ব্যাপারটি তবে মাঠের বাইরের এই ম্যাচে বার্সেলোনা বোর্ড এবং মেসির মধ্যে কে ম্যাচ জেতে,তাতেই নির্ভর করছে মেসির বার্সেলোনা অধ্যায়ের ভবিষ্যত।