গত মাসের ঘটনা, স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখতে চেলেছিলেন ইরানের এক মহিলা। কিন্তু তাঁকে মাঠে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। আর অপমান ও ক্ষোভে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছিলেন সেই মহিলা ফুটবল প্রেমী। কিন্তু তাঁর এই বলিদান যে বিফলে যাবে না সেটা রবিবার স্পষ্ট করে দিল বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা। কড়া বার্তায় ফিফা জানিয়ে দিয়েছে ইরানের ফুটবল মাঠে মহিলা সমর্থদেক যাওয়ার অনুমতি দিতে হবে। চলতি সপ্তাহের শুরুতেই ফিফার এক প্রতিনিধি দল তেহরানে গিয়ে গোটা বিষয়টি নিয়ে পর্যালোচনা করেন। তারপরই রবিবার এক বিবৃতিতে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে ফিফা জানিয়ে দিল ফুটবল মাঠে ঢোকা থেকে মহিলাদের বিরত করা যাবে না। 

আরও পড়ুন - প্রিমিয়ার লিগে সিটির আট গোল, ইতিহাসের পাতা থেকে এমন আরও কয়েকটি ম্যাচের ঝলক

ফুটবল দেখতে না পেরে মহিলার আত্মহত্যার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে ফিফা জানিয়েছে, ‘এই ঘটনা খুবই দুঃখের। একজন মহিলার অপরাধ ছিল সে মাঠে বসে ফুটবল ম্যাচ দেখতে চেয়েছিল। আমরা যতদুর জানি পৃথিবীতে ইরানই একমাত্র দেশ যেখানে মহিলাদের ফুটবল মাঠে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয় এবং শাস্তি দেওয়া হয়। ’

আরও পড়ুন - আইএসএলের নতুন ফ্রাঞ্চাইজি হায়দরাবাদ এফসির লোগো প্রকাশ, উঠে এলে নিজামের শহরের সংস্কৃতি

১৯৭৯ সালে ইসলামিক রেভেলিউশনের পর থেকেই ইরানের ফুটবল মাঠে মহিলাদের প্রবেশে নিশেধাজ্ঞা জারি করা হয়। যদি এই নিয়ে এখন বিক্ষোভ চলছে ইরানে। কিন্তু তাতে তেমন কোনও লাভ হয়নি। ফুটবল ছাড়া অন্য খেলায় যদিও মহিলাদের মাঠে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। 

আরও পড়ুন - আরও বাড়ল ছুটির মেয়াদ, নভেম্বর পর্যন্ত ক্রিকেটে নেই ধোনি, এমনই খবর ক্রিকেট মহলে