Asianet News BanglaAsianet News Bangla

ফিফার নির্বাসন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা স্থগিত, তবে বরফ গলার ইঙ্গিত কেন্দ্রের সলিসিটর জেনারেলের

ভারতীয় ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনকে (AIFF) নির্বাসিত (BAN)করেছে ফিফা (FIFA)। ‘তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের’ কারণে এই শাস্তির কথা ঘোষণা করেছে ফিফা। বুধবার এই মামলার শুনানি স্থগিত রাখলও কেন্দ্রকে দ্রুত হস্তক্ষেপের আর্জি সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court)।
 

hearing on FIFA ban on AIFF adjourned Supreme Court directs central government to resolve issue quickly spb
Author
First Published Aug 17, 2022, 1:09 PM IST

তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপে অভিযোগে সর্বভারতীয় ফুটবল সংস্থাকে নির্বাসিত করেছে ফিফা। মঙ্গলবার এক বিবৃতি দিয়ে ফিফা ভারতীয় ফুটবলকে ব্যান করার কথা জানিয়েছিল। এই নির্বাসনের ফলে যেমন একদিকে কোনও আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচ খেলতে পারবে না ভারতীয় ফুটবল দল। একইসঙ্গে নির্বাসন না উঠলে আগামি অক্টোবরে ভারতের মাটিতে অনুর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপের আয়োজন সম্ভব নয়। বিদেশী ফুটবলার সই করাতে পারবে না ক্লাবগুলি। এছাড়াও একাধিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে ভারতীয় ফুটবলকে। এই সঙ্কট দ্রুত মেটাতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। দ্রুত  ভিত্তিতে সেই মামলার শুনানির দাবি জানানো হয়েছিল। বুধবার সুপ্রিম কোর্ট শুনানি স্থগিত রাখলেও ভারতীয় ফুটবলের উপর থেকে ফিফার নির্বাসন তুলে নেওয়া ও অনূর্ধ্ব-১৭ মহিলা বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব ফিরে পাওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে দ্রুত হস্তক্ষেপের ও সমস্যা মেটানোর নির্দেশ দিয়েছে। 

এআইএফএফের এই মামলাটি বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়, বিচারপতি এএস বোপান্না ও বিচারপতি জেবি পারদিওয়ালার বেঞ্চে শুনানি ছিল। এজলাসে কেন্দ্রের সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা জানান, সমস্যা সমাধানের জন্য দফায় দফায় ফিফার সঙ্গে কথা বলছে কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রক। তাতে বরফ কিছুটা গলেছে বলেও জানিয়েছেন তুষার মেহতা। খুব তাড়াতাডড়ি এই সঙ্কট মিটে যাবে  বলেও আশা প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রের সলিসিটর জেনারেল। সিওএ-র তরফে সিনিয়র অ্যাডভোকেট গোপাল শঙ্করনারায়নন আদালতের সামনে ফিফার নির্বাসনের ফলে উদ্ভুত পরিস্থিতি তুলে ধরেন। তিনি জানান যে, গোকুলাম কেরালা এফসির মহিলা দল উজবেকিস্তানে খেলতে গিয়েও এখনও নিশ্চিত নয় মাঠে নামতে পারবে কিনা। এটিকে-মোহনবাগানের এএফসি টুর্নামেন্টে মাঠে নামা নিয়ে তৈরি হওয়া সংশের কথাও জানানো হয় শীর্ষ আদালতে। শুনানিতে বিচারপতি চন্দ্রচূড়ের বেঞ্চ জানিয়েছে, এই মুহূর্তে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল এআইএফএফের উপর থেকে কী ভাবে নির্বাসন উঠবে! কারণ, এআইএফএফ নির্বাসিত হওয়ার পরে ভারতে মহিলাদের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। ২২ অগাস্ট মামলার পরবর্তী শুনানি বলে জানা গিয়েছে।

hearing on FIFA ban on AIFF adjourned Supreme Court directs central government to resolve issue quickly spb

প্রসঙ্গত, ফিফার নির্বাসন থেকে ভারতীয় ফুটবলের উপক থেকে তুলতে গেলে দুটি পথ অবলম্বন করতে হবে। এক, এআইএফএফ-কে ফিফার নির্বাসন থেকে মুক্ত হতে হলে, সুপ্রিম কোর্টের গঠন করা কমিটিকে সরতে হবে এবং ক্ষমতায় আসতে হবে এআইএফএফ-এর নতুন এক্সিকিউটিভ কমিটিকে। নতুন এক্সিকিউটিভ কমিটি এআইএফএফ-এর পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ হাতে পেলে, তবেই এই নির্বাসন থেকে মুক্ত হবে ভারতীয় ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা। দুই, এআইএফএফ-এর হাতে দায়িত্ব তুলে দিতে হলে করতে হবে নির্বাচন। অর্থাৎ নির্বাচন হলেই কেটে যাবে সব মেঘ। এই মাসের শেষে নির্বাচন হওয়ার কথা। সেটা হলেই ভারতীয় ফুটবল ফের ফিরতে পারবে স্বমেজাজে। করতে পারবে বিশ্বকাপ আয়োজনও। মোহনবাগানও খেলতে পারবে এএফসি কাপে।

আরও পড়ুনঃফের 'শূন্য থেকে শুরু', ফিফা ব্যানের ফলে কোন কোন সমস্যায় পড়তে হবে ভারতীয় ফুটবলকে, জানুন বিস্তারিত

আরও পড়ুনঃফিফার নির্বাসনের ফলে কী সমস্যা হবে ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগানের, জেনে নিন বিস্তারিত

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios