নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে অসমের অবস্থার ক্রমশ অবনতি হচ্ছে। গোটা উত্তর পূর্ব জুড়ে চলছে বিক্ষোভ আন্দোলন। আর এই প্রতিবাদ এমন জায়গায় পৌছে গেছে যে কার্ফু জারি করতে হয়েছে গুয়াহাটি সহ একাধিক জেলায়। নামানো হয়েছে সেনা। আর তাই বৃহস্পতিবার গুয়াহাটিতে আইএসএলের ম্যাচ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে টুর্নামেন্ট কতৃপক্ষ। বৃহস্পতিবারের ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড এফসি ও চেন্নাইন এফসির।  কিন্তু সেই ম্যাচ আয়োজন করা সম্ভব নয়। গত ৪৮ ঘন্টায় পরিস্থিতি ক্রমাগত খারাপ হাওয়ায় টুর্নামেন্ট কমিটির কপালে চিন্তার ভাঁজ। 

 

 

আরও পড়ুন - নাগরিকত্ব বিল নিয়ে অগ্নিগর্ভ অসম, জল ঢালতে টুইট প্রধানমন্ত্রীর

ইন্ডিয়ান সুপার লিগ কতৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘গত ৪৮ ঘন্টায় টুর্নামেন্টের আয়োজকরা বিভিন্ন কতৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছে। যা পরিস্থিতি তাতে আপাতত ম্যাচ বাতিল করা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই। কারণ টুর্নামেন্ট কমিটির কাছে, অংশগ্রহনকারী দল, আইএসএলের সঙ্গে জড়িয়ে থেকা সমস্ত কর্মী এবং দর্শকদের নিরাপত্তা সবার আগে বিবেচ্য। তাই কোনও ভাবেই ম্যাচ আয়োজন করার ঝুঁকি নেওয়া সম্ভব নয়।  আগামী দিনে জানিয়ে দেওয়া হবে কবে বাতিল হয়ে যাওয়া এই ম্যাচ খেলা হবে।’ পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে বুধবার দুই দল অনুশীলন করেনি। হোটেল বন্দি হয়েই থেকেছে। এমনকি বাতিল করে দেওয়া হয়েছিল প্রি-ম্যাচ প্রেস কনফারেন্সও। 

আরও পড়ুন - মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে ভাঙচুর, রেলস্টেশনে আগুন, অগ্নিগর্ভ অসমে রাতেই নামল সেনা

বৃহস্পতিবারের পর আবরও একটি হোম ম্যাচ আছে জন আব্রাহামের দল নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড এফসির। সেটা আগামী সপ্তাহের বুধবার। তার আগে পরিস্থিতির উন্নতি না হলে সেই ম্যাচও বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। আপাতত দুই দলই হোটেল বন্দি। পরিস্থিতি যা তাতে চাপে চেন্নাই। কারণ তাদের গুয়াহাটি ছাড়তে হবে। নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড এফসির এক কর্তা জানিয়েছেন, পরিস্থিতি খুব খারাপ, হোটেলের বাইরে যাওয়ার প্রশ্নই নেই। গুয়াহাটি থেকে বাতিল হয়েছে একাধিক ট্রেন ও বিমান। 

আরও পড়ুন - কল্যাণীতে আইলিগে প্রথম জয় মোহনবাগানের, শিল্টন পালকে বিয়ের উপহার দিল দল