প্রথম ম্যাচে ড্র। তারপর ঘরের মাঠে চ্রাচিল ব্রাদার্সের কাছে চার গোলে লজ্জার হার। বুধবার কল্যাণীতে আইলিগের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নামার আগে বেশ চাপে ছিল মোহনবাগান। কোচ কিভুর চাকরী নিয়েও একটা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল। তবে বুধবার সন্ধের পর থেকে কিছুটা স্বস্তি ফিরে এল সবুজ মেরুন শিবিরে। আইলিগের নবাগত ট্রাউ এফসিকে সামনে পেয়ে কল্যাণীর মাঠে ফুল ফোটালের কিভুর ফুটবলাররা। ৪-০ গোলে ম্যাচ জিতে লিগ টেবিলে ইস্টবেঙ্গলের ঠিক পরেই উঠে এসেছে মোহনবাগান।  সবুজ মেরুনের জয়ের নায়ক ফ্রান গঞ্জালেজ। ম্যাচে জোড়া গোল করলেন তিনি। 

 

 

আরও পড়ুন - পৃথ্বীর ব্যাটে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি, জাতীয় দলে ফেরার দাবি তরুণ ব্যাটসম্যানের

খেলার শুরু থেকেই দুর্বল প্রতিপক্ষএর ওপর ঝঁপিয়ে পরে মোহনবাগান। প্রথম দলে এদিন পরিবর্তন করেই মাঠে নেমেছিল মোহনবাগান। সালভা চামারোকে রিজার্ভ বেঞ্চে, ব্রিটোর বদলে মাঠে নেমেছিলেন য়েসুরাজ। গোলে দেবজিতের বদলে শঙ্কর রায়। খেলার শুরু থেকেই দলের দায়িত্ব যেন নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছিলন ফ্রান গঞ্জালেস। ৪ মিনিটেই ফ্রান গঞ্জালেজের গোলে এগিয়ে যায় মোহনবাগান। ৩৮ মিনিটে ডগলাসের দলের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় গোল করলেন ভিপি সুয়ের। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমে আরও একটি গোল চাপিয়ে দেন ফ্রান। আর খেলার শেষ মিনিটে আবার গোল করে বাগানের জয়কে বড় জয়ে পরিণত করলেন শুভ ঘোষ। ম্যাচের সেরা হয়েছেন ফ্রান গঞ্জালেজ। 

 

 

আরও পড়ুন - আবার অলিম্পিক খেলতে চান বিজেন্দর, তবে মানতে পারবেন না সব শর্ত

বুধবারই জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে চলেছেন মোহনবাগানের ঘরের ছেলে শিল্টন পাল। বাগান গোলকিপারের বিয়েতে যেন তাঁর দল এই জয়টাই উপহার দিল। এবার মোহনবাগান ঘরের মাঠে খেলবে গোকুলামের বিরুদ্ধে । সেই ম্যাচ আগামী সোমবার। বুধবার বড় জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে গোকুলাম ম্যাচ আগে দলের কিছু বিষয় মেরামত করার সুযোগটা পেয়ে যাবেন। কারণ তারপরের রবিবারই ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে নামতে হবে সবুজ মেরুনকে। এদিকে শনিবার ডগলাসের ট্রাউয়ের বিরুদ্ধে নামতে চলেছে ইস্টবেঙ্গল। 

আরও পড়ুন - দুরন্ত ছন্দে লিভারপুল, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডে ক্লপের দল, জয় চেলসিরও