গোটা ফুটবলবিশ্ব কৌতুহলে ছিলেন আন্দ্রেয়া পিরলোর জুভেন্তাসে কোচিংয়ের শুরুটা কেমন হয় তা নিয়ে। সেই পরীক্ষায় আপাতত লেটার মার্কস নিয়ে উত্তীর্ণ ইটালিয়ান কিংবদন্তি। দৃষ্টিনন্দন ফুটবল খেলে প্রতিপক্ষ সাম্পাদরিয়াকে ৩-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে বায়ানকোনেরিরা। জুভেন্তাস দল হিসেবে ছিল অসাধারণ ছন্দে। মাঝমাঠে রাবিওট, ম্যাককেনি, রামসি-রা এবং ডিফেন্সে কিয়েল্লিনি-বুনুচ্চি জুটি ছিল সুন্দর ছন্দে। নিজের সেরা ছন্দে না থাকলেও গোল পেয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোও। এবার দেখার এই ফর্ম বড় দলের বিরুদ্ধেও ধরে রাখতে পারে কিনা পিরলোর জুভে।

আরও পড়ুনঃএটিকে মোহনবাগানের সঙ্গে কথা পাকা সন্দেশের, এবার শুধু সই করার অপেক্ষা

গতদিন সাম্পাদরিয়ার বিরুদ্ধে অনেক গুলি চান্স পেয়েও মাত্র একটি গোল করেছিলেন রোনাল্ডো। এমন দৃশ্য সচরাচর দেখা যায় না। তবে রোনাল্ডো কোনদিন আটকে গেলে গোল করার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিতে পারে এমন একজনকে খুঁজছিলেন পিরলো। ভেসে আসছিল বার্সেলোনার সুয়ারেজ, এ এস রোমার এডিন জেকোর নাম। কিন্তু শেষপর্যন্ত তাদের না নিয়ে নিজেদের ক্লাবে একসময় খেলে যাওয়া আলভারো মোরাতা-কেই চূড়ান্ত করলো জুভেন্তাস।

আরও পড়ুনঃMatch Prediction- আত্মবিশ্বাসী আরসিবি,জয়ে ফিরতে মরিয়া পঞ্জাব, কে করবে বাজিমাত

আরও পড়ুনঃহার দিয়ে আইপিএল অভিযান শুরু কেকেআরের, ৪৯ রানে জিতল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স

লুইস সুয়ারেজ বার্সা ছাড়বেন তা একপ্রকার নিশ্চিত। শোনা যাচ্ছে তার পরবর্তী গন্তব্য অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। তিনি দিয়েগো সিমিওনের দলে যোগ দিলে মোট চার জন স্ট্রাইকার হয়ে যাবে দলে। স্পেনের দিয়েগো কোস্তা, পর্তুগালের জোয়াও ফেলিক্সের সাথে সাথে মোরাতা এবং সুয়ারেজ। এতজন স্ট্রাইকার কে একদলে রাখার মানে হয় না কোনও। তাই একজন স্ট্রাইকার কে ছাড়ার কথা ভাবছিল অ্যাটলেটিকো। তাই মোরাতার অফার আসায় দু বার ভাবেননি তারা। জুভেন্তাসের হয়ে এর আগে কয়েক মরশুম সাফল্যের সাথে খেলে গিয়েছেন মোরাতা। রোনাল্ডোর সাথেও ২০১২-১৩ এবং ২০১৬-১৭ মরশুমে রিয়াল মাদ্রিদে খেলেছেন তিনি। তাই তার তরফ থেকেও আপত্তির কোনও কারণ ছিল না। আপাতত এক বছরের জন্য লোনে এলেও জুভেন্তাসের কাছে অপশন থাকবে এক বছর পর ২৭ বছর বয়সী তারকাকে কিনে নেওয়ার।