লা লিগার তরফ থেকে মঙ্গলবার একটি বয়ান প্রকাশ করা হয়েছে। সেই বক্তব্যের মূল কথা হল যে আগত চার বছরে স্পেনের ফুটবলের সর্বোচ্চ দুটি ডিভিশনের প্রাপ্ত টাকার থেকে ২০০ মিলিয়ন ইউরো দান করতে চলেছে। সেই বিপুল পরিমাণ অর্থ কাজে লাগানো হবে স্প্যানিশ ক্রীড়া এবং নিচু স্তরের ও গ্রাসরুট পর্যায়ের ফুটবলের উন্নতিকল্পে। এভাবেই করোনা ভাইরাসের ফলে জন্ম নেওয়া আর্থিক দুরবস্থার মোকাবিলা করতে চাইছে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন। 

আরও পড়ুনঃ২২ বছর পরেও মরুঝড়ের স্মৃতি মুগ্ধ করে সচিন ভক্তদের

২০১৫ সালে নতুন ব্রডকাস্টিং চুক্তির পর থেকে লা লিগা তার আয়ের ১ শতাংশ স্প্যানিশ স্পোর্টস মিনিস্ট্রিকে দান করে আসছিল। নতুন এই চুক্তির ফলে সেই দানের পরিমান বেড়ে ২.৫ শতাংশ হয়েছে। জাতীয় ফুটবল ফেডারেশনেও দানের পরিমান বেড়ে ১ শতাংশ থেকে ২ শতাংশে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। লা লিগা প্রেসিডেন্ট হাভিয়ার তেবেস এবং ন্যাশনাল সকার ফেডারেশনের সভাপতি লুইস রুবিএলিসের মধ্যে ৮ ঘন্টা টানা বৈঠক চলার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া তাদের সঙ্গে বৈঠকে স্প্যানিশ ক্রীড়ামন্ত্রী ইরেনে লোজানো উপস্থিত ছিলেন। 

আরও পড়ুনঃলকডাউনে ঘরে বসেই স্পোর্টস অ্যাক্টিভিটি বা ফিটনেস চর্চা, সাহায্য করতে পারে ৭ মাস বয়সী এই স্টার্টআপ

আরও পড়ুনঃআর্থিক ক্ষতি সামাল দিতে ভারতের বিরুদ্ধে ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে আগ্রহী অস্ট্রেলিয়া

এর মধ্যেই স্পেনে এই ভাইরাসের দ্বারা ২০০,০০০ লোক আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ২১,২৮২ জন মানুষ মারা গিয়েছেন। ফুটবল বন্ধ থাকার দরুন প্রচুর লা লিগার ক্লাব বড়সর ক্ষতির মুখে পড়ছে। খেলোয়াড় এবং কোচিং স্টাফদের মাইনের কিছু অংশ কেটে নিয়ে সেই পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে ক্লাবগুলি।