চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘটলো বিরল ঘটনা। ১৫ বছর পর প্রথমবারের জন্য মেসি কিংবা রোনাল্ডোর মধ্যে একজনও উপস্থিত থাকছেন না চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে। রোনাল্ডোর দল শেষ ষোলো থেকে বিদায় নিয়েছে এবং গত রাতে ৮-২ গোলে বায়ার্নের কাছে লজ্জার হারের পর বিদায় নিয়েছে মেসির বার্সেলোনাও। শেষবার ২০০৪-০৫ মরশুমে এমন দেখা গিয়েছিল। ওই মরশুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। সেবারও দুই মহাতারকার দল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হয়েছিল। সেই সময় রোনাল্ডো ছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। অবশ্য তখনও কেউই মহাতারকা হয়ে ওঠেননি। 

লিওনের বিরুদ্ধে শেষ ষোলো পর্বে ২-২ এগ্রিগেট থাকলেও অ্যাওয়ে গোলের গেরোয় ফেঁসে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নিতে হয়েছে জুভেন্তাস-কে। ফেব্রুয়ারিতে লিওনের ঘরের মাঠে ১-০ গোলে হেরে এসে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফেরার পর নিজেদের ঘরের মাঠে ২-১ গোলে জিতেছিল জুভেন্তাস। জুভেন্তাসের জয়ে ২ টো গোলই ছিল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর। কিন্তু সেই অসাধারণ পারফরম্যান্স করেও দলকে কোয়ার্টারে তুলতে পারেননি তিনি। 

অপরদিকে শেষ ষোলো পর্বে দুর্দান্তভাবে নাপোলিকে হারিয়ে কোয়ার্টারে বায়ার্নের মুখোমুখি পড়েছিল বার্সেলোনা। গতকাল লিসবনে বার্সেলোনাকে নিয়ে কার্যত ছিনিমিনি খেলে বায়ার্ন মিউনিখ। ৮-২ গোলে হেরে একরাশ লজ্জা সঙ্গী করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নেয় বার্সা। নাপোলির বিরুদ্ধে দুর্দান্ত একটি গোল করলেও গতকাল বায়ার্নের বিরুদ্ধে একেবারেই নিস্প্রভ ছিলেন লিওনেল মেসি। এই বিরল ঘটনা কি দুই মহাতারকার যুগের শেষ হওয়ার ইঙ্গিত দেয়? উত্তরটা সময় দেবে।