উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে তিনি একজন সফল ফুটবলার। একাধিক রেকর্ড রয়েছে তাঁর নামে। বুধবার রাতে আরও একটি নতুন রেকর্ড নিজের দখলে করে নিলেন বার্সেলোনার আর্জেন্তাইন স্ট্রাইকার। বুধবার রাতে ঘরের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্যায়ের ম্যাচে জার্মান ক্লাব বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিরুদ্ধে খেলতে নেমেছিল বার্সেলোনা। ২৯ মিনিটে সুয়ারেজকে গোলের বল সাজিয়ে দেন মেসি। দল এগিয়ে যায়। এর চার মিনিট পরেই বাঁ পাসের শটে গোল করে মেসি। আর এই গোলটাই তাঁকে একটা রেকর্ড এনে দিল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে প্রথম ফুটবলার হিসেবে ৩৪টি আলাদা প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে গোল করার নজির গড়লেন লিও। 

 

 

আরও পড়ুন - অনূর্ধ্ব ১৭ মহিলা বিশ্বকাপ কলকাতায়, যুবভারতীতে পরিদর্শনে করে গেলেন ফিফা কর্তারা

মেসির রকের্ডের পাশাপাশি একটি নতুন রেকর্ড গড়ল তাঁর ক্লাব বার্সেলোনাও। সুয়ারেজ, মেসি ও গ্রিজম্যানের গোলে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে হারিয়ে দিল বার্সেলোনা। একই সঙ্গে তারা পেয়ে গেলে দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট। বরুসিয়ার বিরুদ্ধে জয় নিয়ে বার্সেলোনা গ্রুপ শীর্ষে থেকেই পরের পর্বে গেল কাতালান ক্লাব। গ্রুপে এখনও একটি ম্যাচ বাকি বার্সেলোনার। ৫ ম্যাচে ১১ পয়েন্ট নিয়ে তারা গ্রুপ শীর্ষে। শেষ ম্যাচ হারলেও তাদের শীর্ষ স্থান থেকে কেউই সরাতে পারবে না। এই নিয়ে টানা ১৩বার গ্রুপ শীর্ষে থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডে গেল বার্সেলোনা। 

 

 

আরও পড়ুন - ইস্টবেঙ্গল বনাম ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড, ময়দানে চড়ছে উন্মদনার পারদ

মরসুমের শুরুতে এবার মাঠে নামতে পারেননি মেসি। ক্লাবের হয়ে অনুশীলন শুরু করার পরেই চোট পেয়ে ছিটকে গিয়েছিলেন তিনি। মেসি ছিটকে যাওয়ার পর বার্সেলোনাও একাধিক ম্যাচে খারাপর ফল করে। কিন্তু চোটে কাটিয়ে মেসি মাঠে ফিরতেই আবার শুরু বার্সেলোনার ম্যাজিক। লা লিগা হোক বা উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আবার নিজেদের ছন্দ দেখাতে শুরু করেছে কাতালন ক্লাব। গ্রুপ শীর্ষে থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার পাশাপাশি রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে লা লিগার শীর্ষে রয়েছে ভালভেরদের দল। লা লিগায়া ১৩টি ম্যাচের পর রিয়াল ও বার্সেলোনা দুই দলের পয়েন্টই ২৮। একটি গোলের পার্থক্যে আপাতত এক নম্বরে মেসিরা। 

আরও পড়ুন - ধোনি ও কোহলির সঙ্গে কেমন সম্পর্ক মুখ্য নির্বাচক এমএসকে প্রসাদের, জানালেন নিজেই