যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শনিবারই অনুশীলন ফিরেছেন মেসি। দলের প্রধান তারকা অনুসীলনে ফেরায় স্বস্তি ফিরেছে বার্সা কর্তাদের মধ্যে। একইসঙ্গে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে বিশ্ব জুড়ে বার্সা ও মেসি ভক্তরা। যদিও অনুশীলনেও ফিরলেও, দলের সঙ্গে অনুশীলন করেননি মেসি। একাই করেছেন ফিটনেস ট্রেনিং ও অনুশীলন। একইসঙ্গে মাঠে ফেরা ও খেলতে নামার জন্য আধুনিক ফুটবলের যাদুকর যে কতটা ক্ষুধার্ত তাও প্রকাশ করেছে লিও। শনিবার ঘরের মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে কোচ কিকে সেতিয়েনের তত্ত্বাবধানে দলগত অনুশীলন করেছে বার্সা। দীর্ঘ দিন পরে ক্যাম্প ন্যুতে ফিরে আবেগতাড়িত হয়ে পড়েনে মেসি সহ বার্সার অন্যান্য প্লেয়াররা।

আরও পড়ুনঃআইপিএল আয়োজনের জন্য বিসিসিআইকে প্রস্তাব দিল আমরশাহি

অনুশীলনে ফিরে নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাইন্ট থেকে একটি ছবি শেয়ার করেন মেসি। ছবিটিতে ক্যাম্প ন্যুতে মাঠের মাঝখানে দাঁড়িয়ে রয়েছেন বার্সা তারকা। মেসিকে দেখেই বোঝা যাচ্ছে মাঠে ফেরার জন্য কতটা মরিয়া এলএনটেন। অনুসীলনের পর বার্সার ওয়েবসাইটে মেসি বললেন, ‘‘এতদিন এই জায়গাটার অভাব অনুভব করছিলাম। শুধু ভাবছি, এখানে আবার কবে খেলতে পারব। আর অপেক্ষা করতে পারছি না।’’ করোনা অতিমারিতে বন্ধ থাকা লা লিগা আবার শুরু হলে বার্সেলোনা প্রথম ম্যাচ খেলবে ১৩ জুন রিয়াল মায়োরকার বিরুদ্ধে। এই ম্যাচটা অবশ্য ক্যাম্প ন্যুতে নয়, মেসিকে খেলতে হবে মায়োরকায়। অনুশীলনে ডান পায়ের ঊরুতে চোট পাওয়ায় আর্জেন্টিনীয় তারকার প্রথম ম্যাচ খেলা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল। মেসি দলের সঙ্গে অনুশীলন না করে জিমে আলাদা করে সময় কাটাচ্ছিলেন। তবে শুক্রবারই ক্লাবের পক্ষ থেকে বিবৃতিতে বলা হয়, চোট থাকলেও তিনি দ্রুত সুস্থ হচ্ছেন। প্রথম ম্যাচেও মেসির নামার সম্ভাবনা প্রবল।

 

 

আরও পড়ুনঃখেলাধুলার মধ্যে দিয়ে বিশ্বে পরিবর্তন আনা সম্ভব, টুইটে বার্তা সচিনের

আরও পড়ুনঃসমস্যা সত্ত্বেও প্লেয়ার ও কর্মীদের বেতন কাটতে নারাজ সৌরভ,অন্য খাতে খরচ কমাচ্ছে বিসিসিআই

এদিন শুধু মেসি নয় বার্সেলোনার তরফ থেকে ক্যাম্প ন্যুতে দলের অনুশীলনের একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। যাতে দেখে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে ক্য়াম্প ন্যুতে ফিরে কতটা খুশি বার্সা তারকারা। অনেক ঘরে ফেরার সমান। দলগত অনুশীলনে চলল পাসিং, ড্রিবলিং, শুট সহ সব কিছু। বার্সার সব প্লেয়ারদের মধ্যে আলাদা উন্মাদনা দেখা যায় ক্যাম্প ন্যুর অনুশীলনে। এখন শুধু প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার অপেক্ষায়  কিকে সেতিয়েনের বার্সেলোনা।