আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হতে আর মাত্র তিনটে ম্যাচ জিততে হবে মোহনবাগানকে। এরপরের ম্যাচে ট্রাউ, তারপর যথাক্রমে চেন্নাই এবং আইজলের বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলতে নামবে কিবু ভিকুনার দল। এই মুহুর্তে যা পরিস্থিতি তাতে ডার্বির আগে এই তিনটে ম্যাচে জিতে গেলে ডার্বি খেলার আগেই হয়তো চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে মোহনবাগান। ৪ই এপ্রিল ঘরের মাঠে রিয়াল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে ম্যাচেই মোহনবাগানের হাতে আই লিগ জয়ী ট্রফি তুলে চাইছে ফেডারেশন। মোহনবাগানের তরফ থেকে ফেডারেশনকে চিঠি দিয়ে অনুরোধ করা হয়েছে ৪ঠা এপ্রিলের ম্যাচটি যাতে কল্যাণী তে না খেলে যুবভারতী তে ওই ম্যাচটি খেলতে পারে মোহনবাগান। সেক্ষেত্রে যুবভারতী থেকে ট্রফি নিয়ে শোভাযাত্রা করে ক্লাবে আসতে পারবেন সমর্থকরা। 

অপরদিকে আই লিগে টানা দুটো ম‌্যাচে জয় পেয়ে ইস্টবেঙ্গলে যেন হঠাৎই উড়ে এসে বাসা বেঁধেছে বসন্ত। আর জয়ের হ‌্যাটট্রিক করতে মরিয়া মারিও রিভেরার লাল হলুদের সামনে এ বার প্রতিপক্ষ চার্চিল ব্রাদার্স। নতুন বছরের প্রথম যাদের কাছে হার থেকে ইস্টবেঙ্গলের লিগের লড়াই থেকে ধীরে ধীরে হারিয়ে যাওয়া শুরু হয়েছিল। ট্রাউয়ের বিরুদ্ধে দাপট দেখিয়ে ৪-২ ফলে জয় পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার দুপুরে কলকাতায় ফিরছে ইস্টবেঙ্গল। আর দুপুরেই ফুটবলারদের অনুশীলনে নামিয়েছিলেন মারিও। লিগ থেকে আর বিশেষ কিছুই পাওয়ার নেই লাল-হলুদ-দের। ডার্বি সহ বাকি ম্যাচ জিতে সম্মানের সাথে মরশুম শেষ করতে চায় তারা।

 ট্রাউ ম‌্যাচ জিতলেও দুর্বল রক্ষণ নিয়ে কোচের চিন্তা থেকে যাচ্ছে। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলা তারকা ডিফেন্ডার জনি অ‌্যাকোস্টাও এখনো এসে পৌঁছননি। ডিফেন্স নিয়ে টেনশনের চোরাস্রোতের মধ‌্যেও কোচকে স্বস্তি দিচ্ছেন ভিক্টর পেরেজ। ট্রাউয়ের বিরুদ্ধে ক্রোমার পরিবর্তে নেমে অভিষেকেই যিনি নজর কেড়েছেন। আজ চার্চিলের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে শুরু থেকে নেমেছেন তিনি। 

ফেডারেশনের ইচ্ছের কথা জেনেই মোহনবাগান কর্তারা ঠিক করে ফেলেছেন, বেশি খরচ হলেও সমর্থকদের জন্যই রিয়াল কাশ্মীর ম্যাচটা কল্যাণীর বদলে যুবভারতীতে খেলবে সবুজ মেরুণ ব্রিগেড। ফলে শোভাযাত্রা করে আই লিগ ট্রফি ক্লাব তাঁবুতে নিয়ে আসার জন্য মোহনবাগান সমর্থকদের আর বাড়তি ধকল পোয়াতে হবে না। শোভাযাত্রা করে ট্রফি নিয়ে আসা হবে যুবভারতী থেকে।  মোহনবাগান পারফরম্যান্স থেকে সকলে ধরেই নিয়েছেন, রিয়াল কাশ্মীর ম্যাচের আগেই মোহনবাগানের আই লিগ জয় নিশ্চিত হয়ে যাবে। তাই ৪ই এপ্রিল যুবভারতী থেকে কীভাবে আই লিগ ট্রফি নিয়ে শোভাযাত্রা হবে, তার পরিকল্পনা অনেক আগেই ছকে ফেলা সম্ভব হবে।