তিনি অভ্যস্ত সবুজ ঘাসে দাপট দেখাতে। ভালো দর্শক হিসাবে কোনকালেই খ্যাতি নেই তার, বিশেষ করে যদি নিজের দেশের খেলা হয় এবং তিনি বাধ্য হয়ে বসে থাকেন মাঠের বাইরে তাহলে তো নয়ই। এর আগে ইউরো কাপ ফাইনালেই হোক কিংবা গত বছর ইউরো কোয়ালিফায়ার্সে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়ার সময়, ডাগ আউটে চোট থাকা সত্ত্বেও ক্রমাগত বার বার উত্তেজিত হয়ে দাঁড়িয়ে উঠে কোচের সাথে সাথে দলকে নির্দেশ দিয়ে চালনা করে গিয়েছেন। কাল যদিও পর্তুগালের খেলা দেখে চিন্তিত হওয়ার মতো কিছুই ছিল না। ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে দাপুটে জয় পেয়েছে পর্তুগাল। কিন্তু রোনাল্ডো যেখানে থাকবেন সেখানে তাকে ঘিরে কোনো ঘটনা ঘটবে না এমন হয় নাকি! সেই নিয়ম মেনেই কালও ঘটলো কিছু আকর্ষক ঘটনা। 

আরও পড়ুনঃপ্রকাশিত হল আইপিএল ২০২০-র সূচি, প্রথম ম্যাচে ধোনি বনাম রোহিত

 এই মুহূর্তে বিশ্বফুটবলে পরিচিত দৃশ্য হচ্ছে ডাগ-আউটে থাকা ফুটবলাররা সর্বক্ষণ মাস্ক পরে বসে থাকেন। খালি গ্যালারিকে ডাগ আউট হিসাবে ব্যবহার করা পর্তুগাল দলের সকলের মুখেই ছিল মাস্ক, শুধুমাত্র ব্যাতিক্রম ছিলেন রোনাল্ডো। মাস্ক পাশে রেখেই খেলা দেখছিলেন তিনি। মাঠের এক স্বেচ্ছাসেবিকা এসে এ কথা জানালে পর্তুগিজ মহাতারকা তৎক্ষণাৎ মাস্ক পরে নিয়েছেন। যদিও কড়া করে নয় বরং ওই স্বেচ্ছাসেবী তরুণী খুবই বিনম্র ভাবেই তাকে মাস্ক পড়ে নিতে অনুরোধ করেন। 

আরও পড়ুনঃমুম্বইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে শুরু আইপিএল ২০২০-র অভিযান, জেনে নিন কেকেআরের ক্রীড়াসূচি

এরপর দ্বিতীয়ার্ধ চলাকালীন ঘটে আরেকটি ঘটনা।এস্তাদিও দ্রাগাও স্টেডিয়ামে মাঠে পর্তুগালের জয় তখন নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে। আচমকা ক্যামেরা ধরে রোনাল্ডোর দিকে। খেলা দেখতে বসে হাতে একটি কলা নিয়ে খেতে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু ছাল ছাড়ানো মাত্রই কলাটি পিছলে হাত থেকে বেরিয়ে যায়। অবশিষ্ট কলাটি না খেয়ে ফেলে দিতে দেখা যায় রোনাল্ডোকে। 

আরও পড়ুনঃএমন কিছু তারকা ক্রিকেটার একটি বাউন্ডারিও মারতে পারেননি আইপিএলে, দেখে নিন তাদের তালিকা

মঙ্গলবার সুইডেনের বিপক্ষে মাঠে নামবে পর্তুগাল। ওই ম্যাচেও রোনাল্ডো মাঠে নামবেন কিনা জানা না থাকলেও আজ দলের সাথে পুরোদমে অনুশীলন করেছেন তিনি। ম্যাচের পরে পর্তুগাল কোচ ফার্নান্দো স্যান্টোস জানান বিশ্রাম দেওয়ার জন্য রোনাল্ডোকে বসিয়ে রাখা হয়নি। তার পায়ের বুড়ো আঙুলে মৌমাছির কামড় সংক্রমণে পরিণত হওয়ায় বাধ্য হয়ে খেলতে নামতে পারেননি রোনাল্ডো। গোটা দলের সাথে সুইডেন উড়ে যাবেন তিনিও। সব ঠিক থাকলে প্রথম একাদশে জায়গা পাবেন। 

আরও পড়ুনঃধোনির পর কে হবে সিএসকে-র পরবর্তী অধিনায়ক, আইপিএল ২০২০ শুরুর আগেই নয়া জল্পনা

পর্তুগালের হয়ে গত বছরের নভেম্বরে মাঠে নেমে গোল করেছিলেন রোনাল্ডো। নেশনস লিগের মূলপর্বে উঠার জন্য যোগ্যতাঅর্জনের ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফেরার অপেক্ষায় তিনি। ১৬৪ আন্তর্জাতিক ম্যাচে তাঁর গোলসংখ্যা ৯৯। জাতীয় দলের হয়ে ইতিহাসে দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে শততম গোলের মাইলফলক ছোঁয়ার লক্ষ্য  তার সামনে। এর আগে নজির রয়েছে ইরানের প্রাক্তন স্ট্রাইকার আল আদেই-এর। সেই রেকর্ডটিকে ভেঙে ফেলতে আর ১১ গোল প্রয়োজন রোনাল্ডোর।