দুর্দান্ত জয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। পিছিয়ে পরেও বোর্নমাউথের বিরুদ্ধে জয় ছিনিয়ে নিল তারা। এই জয়ের মধ্যে দিয়ে চেলসির ওপর চাপ বজায় রাখলো ওলে গানার সলশায়ারের ছেলেরা। ১৫ মিনিটে জোসূয়া কিং-এর পাস থেকে গোল করে বোর্নমাউথ-কে এগিয়ে দিয়েছিলেন জুনিয়র স্ট‍্যানিলাস। কিন্তু তারপর ৩০ মিনিটের আগেই মেসন গ্রিনউডের গোলে সমতায় ফেরে রেড ডেভিলসরা। বিরতির আগে মার্কস র‍্যাশফোর্ড পেনাল্টি থেকে এগিয়ে দেন ম্যান ইউকে। বিরতির পরে আবারও বোর্নমাউথের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে তারা। ফের গোল পান গ্রিনউড। গোল করেন অ্যান্থনি মার্শিয়াল এবং ব্রুনো ফার্নান্দেজও। গোল করা ছাড়াও মার্শিয়াল এবং গ্রিনউডের গোলে সহায়তা করেন ব্রুনো। ম্যাচের সেরা তিনিই। ম্যাচের আগে তার এবং পোগবার চোট নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছিল। কিন্তু মাঠে দুজনকেই ছন্দে দেখা গিয়েছে। 

আরও পড়ুনঃরোনাল্ডোর ফ্রি-কিক এবং দিবালার স্কিলে আবারও তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করলো জুভে

সাময়িক ভাবে রেড ডেভিলসরা ৪ নম্বরে উঠে এলেও রাতের খেলায় নিজেদের জায়গা পুনরুদ্ধার করে নেয় ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডের চেলসি। রাতের খেলায় ওয়াটফোর্ড কে তারা হারায় ৩-০ গোলে। গত ম্যাচে ওয়েস্ট হ্যামের বিরুদ্ধে হারের জের কাটিয়ে ফের স্ব-মহিমায় ব্লুজ-রা। ম্যাচ শুরুর আধঘণ্টার মধ্যে চেলসি কে এগিয়ে দেন বিশ্বকাপ জয়ী স্ট্রাইকার অলিভার জিরু। হাফটাইমের ঠিক আগে পেনাল্টি থেকে গোল করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা উইলিয়ান। বিরতির পর দ্বিতীয়ার্ধের একদম শেষ মুহুর্তে গোল করে গোল করে ওয়াটফোর্ডের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন রস বার্কলি।

আরও পড়ুনঃবর্তমানে বিশ্বের সব থেকে 'সেক্সিয়েস্ট অ্যাথলিট', জানুন আলিশা স্মিডের কাহিনি

আরও পড়ুনঃচিনে নিন মাঝমাঠের কান্ডারীদের,যারা এই মরশুমে দলের হয়ে ফুল ফুটিয়েছেন

ইপিএলের অন্য ম্যাচে উলভ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স-কে ২-০ গোলে হারায় মিখাইল আর্টাটের আর্সেনাল। গত দু ম্যাচ ধরে ছন্দে দেখাচ্ছে গানার্সদের। উলভসদের ঘরের মাঠ মলিনাসে সাকা এবং ল‍্যাকাজাতের গোলে পয়েন্ট নিশ্চিত করে আর্সেনাল। এই জয়ের ফলে লিগ টেবিলে সাত নম্বরে উঠে এল তারা। এই হারের ফলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের যোগ্যতা অর্জনের দৌড় থেকে পিছিয়ে পড়লো উলভস। যদিও তারা এখনো ইউরোপা লিগে যোগ্যতা অর্জনের জন্য লড়তে পারবে।