করোনার প্রভাব ২০২১ আইপিএলেও, বাতিল হতে পারে মেগা নিলাম

First Published 10, Aug 2020, 4:25 PM

করোনার কারণে এবছর অনেক দেরিতে শুরু হচ্ছে আইপিএল। পরের বছরের আইপিএলের জন্য বিসিসিআই হাতে সময় পাবে মাত্র ৪ থেকে ৫ মাস। যার কারণে ২০২১-এর আইপিএল নিলাম না করার সিদ্ধান্ত। সম্পূর্ণ একই দল নিয়ে আগামি বছরও খেলতে হবে সব দলকে।
 

<p>চলতি বছরের মার্চ মাসে হওয়ার কথা ছিল আইপিএলের ১৩ তম মরসুম। কিন্তু করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে তা সম্ভব হয়নি। অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে যায় প্রতিযোগিতা। কিন্তু দীর্ঘ টালবাহানার অবশেষ বাতিল হয় চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আর তাতেই দরজা খুলে যায় আইপিএলের।&nbsp;<br />
.</p>

চলতি বছরের মার্চ মাসে হওয়ার কথা ছিল আইপিএলের ১৩ তম মরসুম। কিন্তু করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে তা সম্ভব হয়নি। অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে যায় প্রতিযোগিতা। কিন্তু দীর্ঘ টালবাহানার অবশেষ বাতিল হয় চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আর তাতেই দরজা খুলে যায় আইপিএলের। 
.

<p>দেশে করোনা ভাইরাসের বাড়বাড়ন্তের ফলে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ নভেন্বর পর্যন্ত আরব আমিরশাহির মাটিতে বসতে চলেছে আইপিএল ২০২০-র আসর। কিন্তু শুধু এবছর নয়, বিশ্ব মহামারী এবার ব্যাঘাত ঘটালো ২০২১-এর আইপিএলেও।</p>

দেশে করোনা ভাইরাসের বাড়বাড়ন্তের ফলে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ নভেন্বর পর্যন্ত আরব আমিরশাহির মাটিতে বসতে চলেছে আইপিএল ২০২০-র আসর। কিন্তু শুধু এবছর নয়, বিশ্ব মহামারী এবার ব্যাঘাত ঘটালো ২০২১-এর আইপিএলেও।

<p>করোনার কারণে আগামী বছর আইপিএলে হবে না কোনও নিলাম প্রক্রিয়া। সূত্রের খবর বোর্ড সূত্রেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক বিসিসি কর্তা জানিয়েছেন, আগে থেকে ঠিক থাকলেও,বর্তমান পরিস্থিতিতে মেগা নিলাম আয়োজন করতে চাইছে না বিসিসিআই। আর তার মূল কারণ হল হাতে সঠিক সময় না থাকা।&nbsp;</p>

করোনার কারণে আগামী বছর আইপিএলে হবে না কোনও নিলাম প্রক্রিয়া। সূত্রের খবর বোর্ড সূত্রেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এক বিসিসি কর্তা জানিয়েছেন, আগে থেকে ঠিক থাকলেও,বর্তমান পরিস্থিতিতে মেগা নিলাম আয়োজন করতে চাইছে না বিসিসিআই। আর তার মূল কারণ হল হাতে সঠিক সময় না থাকা। 

<p>চলতি বছরের আইপিএল শেষ হওয়ার পর পরের মরসুমের আইপিএল আয়োজনের জন্য বিসিসিআইয়ের হাতে সময় থাকবে মাত্র চার থেকে পাঁচ মাস। &nbsp;ফলে টুর্রনামেন্ট নিয়ে ঠিক মত পরিকল্পনা করারই সময় পাবে না বিসিসিআই। নিলেমার আয়োজন তো দুরস্থ।&nbsp;</p>

চলতি বছরের আইপিএল শেষ হওয়ার পর পরের মরসুমের আইপিএল আয়োজনের জন্য বিসিসিআইয়ের হাতে সময় থাকবে মাত্র চার থেকে পাঁচ মাস।  ফলে টুর্রনামেন্ট নিয়ে ঠিক মত পরিকল্পনা করারই সময় পাবে না বিসিসিআই। নিলেমার আয়োজন তো দুরস্থ। 

<p>নিলামে যাতে ফ্রাঞ্চাইজিরা তৈরি হতে পারে তার জন্য তাদের সময় দিতে হবে৷ সাধারণত নিলামের জন্য তৈরি হতে ফ্রাঞ্চাইজিদের ৬ মাস সময় লাগে৷ সব দিক বিচার করেই নিলাম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে বিসিসিআই।</p>

নিলামে যাতে ফ্রাঞ্চাইজিরা তৈরি হতে পারে তার জন্য তাদের সময় দিতে হবে৷ সাধারণত নিলামের জন্য তৈরি হতে ফ্রাঞ্চাইজিদের ৬ মাস সময় লাগে৷ সব দিক বিচার করেই নিলাম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে বিসিসিআই।

<p><br />
সরকারিভাবে কিছু না বললেও সূ্ত্রের খবর, বিসিসিআইয়ের এই সিদ্ধান্তকে সম্মতি জানিয়েছে আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। তারাও সহমত পোষণ করেছেন এত কম সময়ের মধ্য নিলামের আয়োজন করা তারপর টুর্নামেন্টের আযোজন করা সম্ভব নয়। অর্থাৎ পরবর্তী আইপিএলের আসরেও প্রায় একই দল ধরে রাখতে হবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে। তাই বেশি সমস্যা না বাড়িয়ে পরপর দুটি আইপিএল সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করাই প্রধান লক্ষ্য় বিসিসিআই ও ফ্র্যাঞ্চাইজি গুলি। &nbsp;</p>


সরকারিভাবে কিছু না বললেও সূ্ত্রের খবর, বিসিসিআইয়ের এই সিদ্ধান্তকে সম্মতি জানিয়েছে আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। তারাও সহমত পোষণ করেছেন এত কম সময়ের মধ্য নিলামের আয়োজন করা তারপর টুর্নামেন্টের আযোজন করা সম্ভব নয়। অর্থাৎ পরবর্তী আইপিএলের আসরেও প্রায় একই দল ধরে রাখতে হবে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে। তাই বেশি সমস্যা না বাড়িয়ে পরপর দুটি আইপিএল সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করাই প্রধান লক্ষ্য় বিসিসিআই ও ফ্র্যাঞ্চাইজি গুলি।  

loader