ধোনি আবেগের কাছে হার মানল কাঁটাতারও, ক্রিকেট মাঠকে বিদায় জানালেন 'বসির চাচা'

First Published 18, Aug 2020, 12:26 PM

ধোনির অবসরের পর কেটে গিয়েছে অনেকটা সময়। এখনও সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ক্রিকেট বিশ্ব এমএস ধোনিকে নিয়ে আলোচনার শেষ নেই। ধোবনির বর্ণময় কেরিয়ারের পাশাাশি আলোচনা চলছে রায়নাকে নিয়েও। কারণ প্রিয় বন্ধু ও অধিনায়কের অবসরের সঙ্গী হয়েছেন তিনিও। শুধু রায়না নয়, ধোনির অবসরে ক্রিকেট মাঠ থেকে অবসর নিলেন আরও এক ব্যক্তি। সীমানা, গন্ডী,কাঁটাতার, শত্রুতা সব কিছুকে হেলায় উড়িয়ে দিয়ে ধোনির অন্ধ ভক্ত পাকিসিতানের বসির চাচা। ধোনির অবসরের ফলে ক্রিকেট মাঠ থেকে অবসর নিলেন বসির চাচা। 
 

<p>এমএস ধোনির অবসর গ্রহণের পর প্রিয় অধিনায়ক ও বন্ধুর সঙ্গে অবসর নিয়েছেন সুরেশ রায়নাও। কিন্তু শুধু সুরেশ রায়নাই নন, ধোনির অবসর গ্রহণের ফলে অবসর নিয়েছেন আরও এক জন। কেউ নিজের কেরিয়ার ভুলে, কেউ দেশজ সীমানার গণ্ডি ভুলে। না তিনি কোনও ক্রিকেটার নয়, এমনকী এদেশের বাসিন্দাও নয়, তিনি পাকিস্তান ক্রিকেট দলের খ্যাতনামা সমর্থক বসির চাচা।&nbsp;</p>

এমএস ধোনির অবসর গ্রহণের পর প্রিয় অধিনায়ক ও বন্ধুর সঙ্গে অবসর নিয়েছেন সুরেশ রায়নাও। কিন্তু শুধু সুরেশ রায়নাই নন, ধোনির অবসর গ্রহণের ফলে অবসর নিয়েছেন আরও এক জন। কেউ নিজের কেরিয়ার ভুলে, কেউ দেশজ সীমানার গণ্ডি ভুলে। না তিনি কোনও ক্রিকেটার নয়, এমনকী এদেশের বাসিন্দাও নয়, তিনি পাকিস্তান ক্রিকেট দলের খ্যাতনামা সমর্থক বসির চাচা। 

<p>ভারত-পাক ম্যাচে পাকিস্তানের সমর্থন করলেও, ধোনির হয়েও গলা ফাটান &nbsp;বসির চাচা। প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের অন্ধ সমর্থক তিনি। ধোনির জন্য তার আবেগটাইই আলাদা। তাই ধোনির অবসর গ্রহণের সিদ্ধান্ত অন্তর থেকে ব্যথিত বিসর চাচা। ভবিষ্যতে আর ভারত-পাক ম্যাচে মাঠে না যাবার সিদ্ধান্তও নিয়েছেন তিনি।<br />
&nbsp;</p>

ভারত-পাক ম্যাচে পাকিস্তানের সমর্থন করলেও, ধোনির হয়েও গলা ফাটান  বসির চাচা। প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের অন্ধ সমর্থক তিনি। ধোনির জন্য তার আবেগটাইই আলাদা। তাই ধোনির অবসর গ্রহণের সিদ্ধান্ত অন্তর থেকে ব্যথিত বিসর চাচা। ভবিষ্যতে আর ভারত-পাক ম্যাচে মাঠে না যাবার সিদ্ধান্তও নিয়েছেন তিনি।
 

<p>জন্মসূত্রে পাকিস্তানি হলেও, তার নিবাস শিকাগোতে। সেখানে একটি রেস্তোরা চালান তিনি। হৃদয় থেকে ভালোবাসেন ধোনিকে। তাই ধোনির অবসর গ্রহণের পর তিনিও অবসর নিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>

জন্মসূত্রে পাকিস্তানি হলেও, তার নিবাস শিকাগোতে। সেখানে একটি রেস্তোরা চালান তিনি। হৃদয় থেকে ভালোবাসেন ধোনিকে। তাই ধোনির অবসর গ্রহণের পর তিনিও অবসর নিলেন বলে জানিয়েছেন তিনি। 
 

<p>এক সাক্ষাৎকারে বসির চাচা বলেছেন,'ধোনি অবসরে গিয়েছে তাই আমিও ম্যাচ দেখা থেকে অবসর ঘোষণা করলাম। আমি ধোনিকে ভীষণ ভালোবাসি আর সেও আমায় ভালোবাসে। তাই ও যখন আর নেই আমার ঘুরে-ঘুরে ক্রিকেট ম্যাচ দেখার কোনও মানে হয় না।'<br />
&nbsp;</p>

এক সাক্ষাৎকারে বসির চাচা বলেছেন,'ধোনি অবসরে গিয়েছে তাই আমিও ম্যাচ দেখা থেকে অবসর ঘোষণা করলাম। আমি ধোনিকে ভীষণ ভালোবাসি আর সেও আমায় ভালোবাসে। তাই ও যখন আর নেই আমার ঘুরে-ঘুরে ক্রিকেট ম্যাচ দেখার কোনও মানে হয় না।'
 

<p>চাচা আরও বলেছেন, ‘প্রত্যেক মহান ক্রিকেটারেরই অবসরের মুহূর্ত আসে। কিন্তু ধোনির অবসর ঘোষণা আমায় ভীষণ কষ্ট দিচ্ছে একইসঙ্গে পুরনো অনেক কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে। ওর একটা জমকালো বিদায়ী সংবর্ধনা পাওয়া উচিৎ ছিল। যদিও ও এই সবকিছুর ঊর্ধ্বে।’<br />
&nbsp;</p>

চাচা আরও বলেছেন, ‘প্রত্যেক মহান ক্রিকেটারেরই অবসরের মুহূর্ত আসে। কিন্তু ধোনির অবসর ঘোষণা আমায় ভীষণ কষ্ট দিচ্ছে একইসঙ্গে পুরনো অনেক কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে। ওর একটা জমকালো বিদায়ী সংবর্ধনা পাওয়া উচিৎ ছিল। যদিও ও এই সবকিছুর ঊর্ধ্বে।’
 

<p>শোনা যায় পাকিস্তানের সমর্থক হয়ে ধোনির হয়ে মাঠে চিৎকার করায় একাধিকবার পাক সমর্থকদের থেকেই বিদ্রুপের শিকার হয়েছেন তিনি। ২০১১ সালের বিশ্বকাপে ফাইনালে টিকিটও পাননি বসির চাচা। সেই সময় ধোনি তাক টিকিটের ব্যবস্থা করে দিয়ছিলেন। তখন থেকেই ধোনি ও বসির চাচার সুসম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে আসে।</p>

শোনা যায় পাকিস্তানের সমর্থক হয়ে ধোনির হয়ে মাঠে চিৎকার করায় একাধিকবার পাক সমর্থকদের থেকেই বিদ্রুপের শিকার হয়েছেন তিনি। ২০১১ সালের বিশ্বকাপে ফাইনালে টিকিটও পাননি বসির চাচা। সেই সময় ধোনি তাক টিকিটের ব্যবস্থা করে দিয়ছিলেন। তখন থেকেই ধোনি ও বসির চাচার সুসম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে আসে।

<p>ধোনিকে ছাড়া ক্রিকেট আর আগের মত থাকবে বলেও জানিয়েছেন বসির চাচা। বর্তমানে হার্টের অসুখে ভুগছেন ধোনির এই অন্ধ সমর্থক। তারপরও,আইপিএলের পর ধোনির রাঁচির বাড়িতে যাবেন বলে জানিয়েছেন বসির চাচা। ধোনির বর্ণময় কেরিয়ার ও আগামি জীবনের জন্য তাকে শুভেচ্ছা জানাবেন।</p>

ধোনিকে ছাড়া ক্রিকেট আর আগের মত থাকবে বলেও জানিয়েছেন বসির চাচা। বর্তমানে হার্টের অসুখে ভুগছেন ধোনির এই অন্ধ সমর্থক। তারপরও,আইপিএলের পর ধোনির রাঁচির বাড়িতে যাবেন বলে জানিয়েছেন বসির চাচা। ধোনির বর্ণময় কেরিয়ার ও আগামি জীবনের জন্য তাকে শুভেচ্ছা জানাবেন।

<p><br />
ভারতের চির শত্রু দেশের বাসিন্দা ও সমর্থক হলেও, হৃদয় থেকে কাওকে সমর্থন করলে বা ভালোবাসলে কাঁটা তার যে তা আটকাতে পারে না তার আরও এক উদাহরণ বসির চাচা। কারণ ধোনিকে ভালোবাসা যদি কোনও শিল্প হয়ে থাকে, তাহলে বশির চাচা তার পাবলো পিকাসো।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>


ভারতের চির শত্রু দেশের বাসিন্দা ও সমর্থক হলেও, হৃদয় থেকে কাওকে সমর্থন করলে বা ভালোবাসলে কাঁটা তার যে তা আটকাতে পারে না তার আরও এক উদাহরণ বসির চাচা। কারণ ধোনিকে ভালোবাসা যদি কোনও শিল্প হয়ে থাকে, তাহলে বশির চাচা তার পাবলো পিকাসো। 
 

loader