ফিরছে ইপিএল,চিনে নিন প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসের সেরা ১০ গোল মেশিনদের

First Published 16, Jun 2020, 1:22 PM

১৭ তারিখ শুরু হচ্ছে পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রিমিয়ার লিগ। প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি শেফিল্ড ইউনাইটেড এবং অ্যাস্টন ভিলা। পুনরায় শুরুর আগে চিনে নিন প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসের সেরা ১০ গোলদাতাদের।
 

<p><strong>১০. লেস ফার্দিনান্দ-</strong><br />
মোট ছয়টি ক্লাবের হয়ে ইপিএলে খেলেছেন এই তারকা। তার মধ্যে রয়েছে লেস্টার সিটি, টটেনহ্যাম হটস্পারের মতো বড় বড় ক্লাব। এই সমস্ত ক্লাব গুলি মিলিয়ে তিনি ৩৪৯ টি ম্যাচ খেলেছেন। এবং প্রিমিয়ার লিগে তার গোলসংখ্যা ১৪৯। লেস্টার সিটির বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কারও জিতেছেন তিনি। </p>

১০. লেস ফার্দিনান্দ-
মোট ছয়টি ক্লাবের হয়ে ইপিএলে খেলেছেন এই তারকা। তার মধ্যে রয়েছে লেস্টার সিটি, টটেনহ্যাম হটস্পারের মতো বড় বড় ক্লাব। এই সমস্ত ক্লাব গুলি মিলিয়ে তিনি ৩৪৯ টি ম্যাচ খেলেছেন। এবং প্রিমিয়ার লিগে তার গোলসংখ্যা ১৪৯। লেস্টার সিটির বর্ষসেরা ফুটবলারের পুরস্কারও জিতেছেন তিনি। 

<p><strong>৯. মাইকেল আওয়েন-</strong><br />
নিজের দীর্ঘ কেরিয়ারে আওয়েন লিভারপুল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, নিউকাসেল, স্টোক সিটির মতো বড় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দলে খেলেছেন। প্রিমিয়ার লিগে ৩২৬ টি ম্যাচ খেলে তিনি ১৫০ টি গোল করেছেন। দুবার প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার স্বরূপ গোল্ডেন বুট জিতেছেন। ২০১০-১১ মরশুমে ম্যান-ইউ এর হয়ে লিগও জিতেছেন তিনি। </p>

৯. মাইকেল আওয়েন-
নিজের দীর্ঘ কেরিয়ারে আওয়েন লিভারপুল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, নিউকাসেল, স্টোক সিটির মতো বড় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দলে খেলেছেন। প্রিমিয়ার লিগে ৩২৬ টি ম্যাচ খেলে তিনি ১৫০ টি গোল করেছেন। দুবার প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার স্বরূপ গোল্ডেন বুট জিতেছেন। ২০১০-১১ মরশুমে ম্যান-ইউ এর হয়ে লিগও জিতেছেন তিনি। 

<p><br />
<strong>৮. রবি ফ্লাওয়ার-</strong><br />
প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল, লিডস, ব্ল্যাকবোর্ন প্রভৃতি দলের হয়ে খেলেছেন। মোট ৩৭৯ টি ম্যাচে মাঠে নেমে তিনি ১৬৩ টি গোল করেছেন। যদিও দুর্ভাগ্যজনকভাবে কোনোদিন প্রিমিয়ার লিগ জয়ের স্বাদ পাননি তিনি। হতে পারেননি লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতাও।<br />
 </p>


৮. রবি ফ্লাওয়ার-
প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল, লিডস, ব্ল্যাকবোর্ন প্রভৃতি দলের হয়ে খেলেছেন। মোট ৩৭৯ টি ম্যাচে মাঠে নেমে তিনি ১৬৩ টি গোল করেছেন। যদিও দুর্ভাগ্যজনকভাবে কোনোদিন প্রিমিয়ার লিগ জয়ের স্বাদ পাননি তিনি। হতে পারেননি লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতাও।
 

<p><strong>৭. জার্মেইন ডিফো-</strong><br />
নিজের দীর্ঘ কেরিয়ারে ডিফো বোর্নমাউথ, পোর্টসমাউথ, সান্ডারল্যান্ড, টটেনহ্যাম হটস্পারের মতো দলের হয়ে খেলেছেন। প্রায় ৫০০ টি প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে মাঠে নেমে তার গোলসংখ্যা ১৬২। ইনিও কোনদিন গুরুত্বপূর্ণ কোন ট্রফি বা সম্মান জিততে সক্ষম হননি ইপিএলে। <br />
 </p>

৭. জার্মেইন ডিফো-
নিজের দীর্ঘ কেরিয়ারে ডিফো বোর্নমাউথ, পোর্টসমাউথ, সান্ডারল্যান্ড, টটেনহ্যাম হটস্পারের মতো দলের হয়ে খেলেছেন। প্রায় ৫০০ টি প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে মাঠে নেমে তার গোলসংখ্যা ১৬২। ইনিও কোনদিন গুরুত্বপূর্ণ কোন ট্রফি বা সম্মান জিততে সক্ষম হননি ইপিএলে। 
 

<p><strong>৬. থিয়ের অঁরি-</strong><br />
একবিংশ শতাব্দীর একদম গোড়ার দিকে নিজের অসাধারণ ফুটবলের মাধ্যমে সারা বিশ্বের নজর কেড়েছিলেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার। .৬৮ গড়ে মোট ১৭৫ টি গোল করেছেন তিনি প্রিমিয়ার লিগে আর্সেনালের হয়ে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের একমাত্র ফরোয়ার্ড হিসাবে এক মরশুমে ২০ টি গোল এবং ২০ টি এসিস্ট করার রেকর্ড রয়েছে তার। প্রিমিয়ার লিগে ৪ বার সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার স্বরূপ গোল্ডেন বুট জিতেছেন তিনি। <br />
 </p>

৬. থিয়ের অঁরি-
একবিংশ শতাব্দীর একদম গোড়ার দিকে নিজের অসাধারণ ফুটবলের মাধ্যমে সারা বিশ্বের নজর কেড়েছিলেন এই ফরাসি স্ট্রাইকার। .৬৮ গড়ে মোট ১৭৫ টি গোল করেছেন তিনি প্রিমিয়ার লিগে আর্সেনালের হয়ে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের একমাত্র ফরোয়ার্ড হিসাবে এক মরশুমে ২০ টি গোল এবং ২০ টি এসিস্ট করার রেকর্ড রয়েছে তার। প্রিমিয়ার লিগে ৪ বার সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার স্বরূপ গোল্ডেন বুট জিতেছেন তিনি। 
 

<p><strong>৫. ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড-</strong><br />
একজন মিডফিল্ডার হওয়া সত্ত্বেও এই তালিকায় জ্বলজ্বলে উপস্থিতি রয়েছে ল্যাম্পার্ডের। প্রিমিয়ার লিগে প্রধানত চেলসি এবং অল্প কিছু সময় ওয়েস্ট হ্যাম এবং ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে তিনি মোট ৬০৯ টি ম্যাচ খেলেছেন। অসাধারণ এই মিডফিল্ডার মাঝমাঠ থেকে দলের খেলা কন্ট্রোল করার সাথে সাথে মোট ১৭৭ টি গোলও করেছেন লিগে। </p>

৫. ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড-
একজন মিডফিল্ডার হওয়া সত্ত্বেও এই তালিকায় জ্বলজ্বলে উপস্থিতি রয়েছে ল্যাম্পার্ডের। প্রিমিয়ার লিগে প্রধানত চেলসি এবং অল্প কিছু সময় ওয়েস্ট হ্যাম এবং ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে তিনি মোট ৬০৯ টি ম্যাচ খেলেছেন। অসাধারণ এই মিডফিল্ডার মাঝমাঠ থেকে দলের খেলা কন্ট্রোল করার সাথে সাথে মোট ১৭৭ টি গোলও করেছেন লিগে। 

<p><strong>৪. সার্জিও আগুয়েরো-</strong><br />
আর্জেন্টিনার এই প্রতিভাবান স্ট্রাইকার স্পেনের আতলেতিকো মাদ্রিদ থেকে যোগ দিয়েছিলেন ইপিএলে। ইপিএলে তিনি খেলেন ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে। সিটির হয়ে এখনো অবধি তিনটি প্রিমিয়ার লিগ খেতাব জিতেছেন তিনি। প্রত্যেকবারই লিগ জয়ে মুখ্য ভূমিকা পালন করেছিলেন তিনি। এখনও অবধি ২৬১ টি ম্যাচ খেলে মোট ১৮০ টি গোল করেছেন তিনি। এই তালিকায় গোলের গড় সবথেকে ভালো তার। <br />
 </p>

৪. সার্জিও আগুয়েরো-
আর্জেন্টিনার এই প্রতিভাবান স্ট্রাইকার স্পেনের আতলেতিকো মাদ্রিদ থেকে যোগ দিয়েছিলেন ইপিএলে। ইপিএলে তিনি খেলেন ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে। সিটির হয়ে এখনো অবধি তিনটি প্রিমিয়ার লিগ খেতাব জিতেছেন তিনি। প্রত্যেকবারই লিগ জয়ে মুখ্য ভূমিকা পালন করেছিলেন তিনি। এখনও অবধি ২৬১ টি ম্যাচ খেলে মোট ১৮০ টি গোল করেছেন তিনি। এই তালিকায় গোলের গড় সবথেকে ভালো তার। 
 

<p><strong>৩. অ্যান্ড্রু কোল-</strong><br />
দু দশক ধরে খেলেছেন প্রিমিয়ার লিগে। এই দুই দশকে তিনি নিউকাসেল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ব্ল্যাকবোর্ন রোভার্স, ফুলহ্যাম, ম্যানচেস্টার সিটি, পোর্টসমাউথ, সান্দারল্যান্ড-এর মতো ক্লাবগুলিতে খেলেছেন। এই সবকটি ক্লাব মিলিয়ে তিনি মোট ১৮৭ টি গোল করেছেন। মোট পাঁচ বার প্রিমিয়ার লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন। ১৯৯৩-৯৪ প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন। <br />
 </p>

৩. অ্যান্ড্রু কোল-
দু দশক ধরে খেলেছেন প্রিমিয়ার লিগে। এই দুই দশকে তিনি নিউকাসেল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ব্ল্যাকবোর্ন রোভার্স, ফুলহ্যাম, ম্যানচেস্টার সিটি, পোর্টসমাউথ, সান্দারল্যান্ড-এর মতো ক্লাবগুলিতে খেলেছেন। এই সবকটি ক্লাব মিলিয়ে তিনি মোট ১৮৭ টি গোল করেছেন। মোট পাঁচ বার প্রিমিয়ার লিগ জয়ের স্বাদ পেয়েছেন। ১৯৯৩-৯৪ প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছিলেন। 
 

<p><strong>২. ওয়েন রুনি-</strong><br />
প্রিমিয়ার লিগ কেরিয়ার শুরু এবং শেষ করেছিলেন এভার্টনে। মাঝে নিজের কেরিয়ারের প্রধানসময়টা কাটিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। এই সময় একবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এবং মোট ৫ বার প্রিমিয়ার লিগ সহ অসংখ্য ট্রফি জিতেছেন তিনি। নিজের বর্ণময় কেরিয়ারে শুধুমাত্র প্রিমিয়ার লিগেই ০.৪২ এর ভদ্রস্থ গড়ে করেছেন ২০৮ টি গোল। </p>

২. ওয়েন রুনি-
প্রিমিয়ার লিগ কেরিয়ার শুরু এবং শেষ করেছিলেন এভার্টনে। মাঝে নিজের কেরিয়ারের প্রধানসময়টা কাটিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। এই সময় একবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ এবং মোট ৫ বার প্রিমিয়ার লিগ সহ অসংখ্য ট্রফি জিতেছেন তিনি। নিজের বর্ণময় কেরিয়ারে শুধুমাত্র প্রিমিয়ার লিগেই ০.৪২ এর ভদ্রস্থ গড়ে করেছেন ২০৮ টি গোল। 

<p><strong>১. অ্যালেন শেরার-</strong><br />
ব্ল্যাকবোর্ন রোভার্সের হয়ে নিজের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। তারপর নিউকাসেলে যোগ দিয়ে প্রায় এক দশক ওখানেই খেলেছেন। প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনিই। প্রিমিয়ার লিগে ০.৫৯ গড়ে মোট ২৬০ টি গোল করেছেন তিনি। যদিও কেরিয়ারে মাত্র একবার তিনি প্রিমিয়ার লিগের খেতাব জিততে পেরেছেন, কিন্তু মোট তিনটি মরশুমে প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন শেরার।</p>

১. অ্যালেন শেরার-
ব্ল্যাকবোর্ন রোভার্সের হয়ে নিজের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। তারপর নিউকাসেলে যোগ দিয়ে প্রায় এক দশক ওখানেই খেলেছেন। প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনিই। প্রিমিয়ার লিগে ০.৫৯ গড়ে মোট ২৬০ টি গোল করেছেন তিনি। যদিও কেরিয়ারে মাত্র একবার তিনি প্রিমিয়ার লিগের খেতাব জিততে পেরেছেন, কিন্তু মোট তিনটি মরশুমে প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন শেরার।

loader