16

রাতে ২ কাপ জলে ৭-৮ টা কিশমিশ ভিজিয়ে রেখে দিন।  পরের দিন সকালে ওই কিশমিশ ছেঁকে জল হালকা গরম করুন।  খালি পেটে এই জল খেয়ে নিন। 

Subscribe to get breaking news alerts

26

এই জল খাওয়ার আধঘণ্টার মধ্যে কিছু খাবেন না। সপ্তাহে তিন থেকে চার দিন এই জল খান। মনে রাখবেন কিশমিশের রং যত গাঢ় হবে, তত উপকারী।
 

36

কিশমিশ ভেজানো জল খেলে কিডনির নানা সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়। পাশাপাশি সুস্থ থাকে লিভারও।

46

যাঁরা নিয়মিত পেটের ও হজমের সমস্যায় ভোগেন, তাঁদের জন্য এই টোটকা খুবই কার্যকর। এই পানীয় পেট পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে।

56

কিশমিশে রয়েছে পটাশিয়াম যা হার্টকে ভাল রাখে। শরীরের খারাপ কোলেস্টেরলকেও দূরে রাখতেও সাহায্য করে এই উপাদান। 
 

66

কিশমিশে পর্যাপ্ত পরিমাণে কার্বহাইড্রেট থাকে। কিশমিশ ভেজানো জল তাই মহিলাদের পক্ষে উপকারী। মহিলারা রক্তাল্পতায় ভোগেন। তাই চিকিৎসকরা তাঁদের কিশমিশ খাওয়ার পরামর্শ দেন।