চিনের থেকে অস্ত্র ছাড়াও পাকিস্তান কিনছে আরও অনেক কিছু, শীতকাল কি বিপদ ডেকে আনবে ভারতের

First Published 18, Aug 2020, 11:50 PM

তবে কি আসছে শীতেই দুই ফ্রন্টে লড়তে হবে ভারতকে? পাকিস্তান ও চিন এখন ভারতের শান্তি ও স্থিতি নষ্ট করতে নতুন এক ষড়যন্ত্রে মেতেছে বলে জানা গিয়েছে ভারতীয় গোয়েন্দা সূত্রে। জম্মু ও কাশ্মীরে জঙ্গি অনুপ্রবেশে পাকিস্তানের হাত শক্ত করতে সাহায্য করতে চলেছে চিন, এমনটাই জানা গিয়েছে।

 

<p>ওই সূত্রের দাবি, জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদী ষড়যন্ত্রের জন্য চিন থেকে প্রয়োজনীয় অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম কিনতে চলেছে পাকিস্তান। কী কী কেনা হবে তার একটা দীর্ঘ তালিকা তৈরি করেছে ইসলামাবাদ।</p>

<p>&nbsp;</p>

ওই সূত্রের দাবি, জম্মু ও কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদী ষড়যন্ত্রের জন্য চিন থেকে প্রয়োজনীয় অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম কিনতে চলেছে পাকিস্তান। কী কী কেনা হবে তার একটা দীর্ঘ তালিকা তৈরি করেছে ইসলামাবাদ।

 

<p>জানা গিয়েছে এর মধ্য়েই চিনা পিএলএ-র কয়েকজন কর্মকর্তা পাক সফরের যাবেন। সেই সময়ই পাকিস্তানের এই তালিকা সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি বড় চুক্তি চূড়ান্ত হতে পারে।</p>

<p>&nbsp;</p>

জানা গিয়েছে এর মধ্য়েই চিনা পিএলএ-র কয়েকজন কর্মকর্তা পাক সফরের যাবেন। সেই সময়ই পাকিস্তানের এই তালিকা সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি বড় চুক্তি চূড়ান্ত হতে পারে।

 

<p>সূত্রের দাবি, পাকিস্তান চিনের থেকে অন্তত ৩০০০ থেকে ৪০০০টি 'মিলিটারি কমব্যাট ব্যালিস্টিক বুলেট প্রুফ জ্যাকেট' কিনতে চলেছে। এই বুলেটপ্রুফ জ্যাকেটগুলি পাবে পাক সেনার 'মুজাহিদ ব্যাটালিয়ন'এর সদস্যরা। এই পাক আধাসেনা বাহিনীই নিয়ন্ত্রণরেখা পার করার সময় জইশ ও লস্কর সন্ত্রাসবাদীদের সাহায্য করে থাকে।</p>

<p>&nbsp;</p>

সূত্রের দাবি, পাকিস্তান চিনের থেকে অন্তত ৩০০০ থেকে ৪০০০টি 'মিলিটারি কমব্যাট ব্যালিস্টিক বুলেট প্রুফ জ্যাকেট' কিনতে চলেছে। এই বুলেটপ্রুফ জ্যাকেটগুলি পাবে পাক সেনার 'মুজাহিদ ব্যাটালিয়ন'এর সদস্যরা। এই পাক আধাসেনা বাহিনীই নিয়ন্ত্রণরেখা পার করার সময় জইশ ও লস্কর সন্ত্রাসবাদীদের সাহায্য করে থাকে।

 

<p>এছাড়া চিনের থেকে পাকিস্তান কিনবে বেশ কিছু বেলুন-বাহিত গুপ্তচর রাডার। এলওসি-র নিকটবর্তী এলাকায় এগুলি মোতায়েন করা হবে। এই রাডারগুলির মাধ্যমে পাক সেনাবাহিনী সীমান্তে ভারতীয় সুরক্ষা বাহিনীর চলাচলের উপর দূর থেকে নজরদারি করতে পারবে।</p>

এছাড়া চিনের থেকে পাকিস্তান কিনবে বেশ কিছু বেলুন-বাহিত গুপ্তচর রাডার। এলওসি-র নিকটবর্তী এলাকায় এগুলি মোতায়েন করা হবে। এই রাডারগুলির মাধ্যমে পাক সেনাবাহিনী সীমান্তে ভারতীয় সুরক্ষা বাহিনীর চলাচলের উপর দূর থেকে নজরদারি করতে পারবে।

<p>তবে শুধু পাক সেনাবাহিনীই নয়, পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-ও চিনের সঙ্গে কিছু পণ্য কেনার বিষয়ে চুক্তি করতে যাচ্ছে বলে খবর গিয়েছে। জানা গিয়েছে তারা চাইছে প্রচুর পরিমাণে 'হাই অল্টিটিউড গুডস' বা উঁচু পাহাড়ে ব্যবহারের সামগ্রী।</p>

<p>&nbsp;</p>

তবে শুধু পাক সেনাবাহিনীই নয়, পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-ও চিনের সঙ্গে কিছু পণ্য কেনার বিষয়ে চুক্তি করতে যাচ্ছে বলে খবর গিয়েছে। জানা গিয়েছে তারা চাইছে প্রচুর পরিমাণে 'হাই অল্টিটিউড গুডস' বা উঁচু পাহাড়ে ব্যবহারের সামগ্রী।

 

<p>পাকিস্তানের পণ্য তালিকা যা একটি চীনা সংস্থা থেকে উত্সাহিত হচ্ছে। এটি 15 ধরণের এই উচ্চ উচ্চতার পোশাকগুলির জন্য কেনাকাটা করছে। উচ্চ পাহাড়ে ব্যবহারের গগলস, হারনেস সিট (খাড়া পাহাড়ে ঝুলে বিশ্রাম নেওয়ার জন্য), তীব্র শীত আটকানোর মতো টুপি, পর্বতারোহীদের পোশাক, পর্বতারোহীদের গ্লাভস, চামড়ার গ্লাভস, বরফে ঢাকা পাহাড়েও জল খাওয়া যায় এমন পানীয় জলের বোতল, ধ্বসে চাপা পড়লে সঙ্কেত দেওয়ার যন্ত্র, ভাঁজ করা যায় এমন মই, তার কাটার যন্ত্র, ফেস প্রোটেক্টর,গ্লেসিয়ার হ্যাট, পার্কার জ্যাকেট - এরকম বহু পর্বতারোহনের সঙ্গে সম্পর্কিত সরঞ্জাম।</p>

<p>&nbsp;</p>

পাকিস্তানের পণ্য তালিকা যা একটি চীনা সংস্থা থেকে উত্সাহিত হচ্ছে। এটি 15 ধরণের এই উচ্চ উচ্চতার পোশাকগুলির জন্য কেনাকাটা করছে। উচ্চ পাহাড়ে ব্যবহারের গগলস, হারনেস সিট (খাড়া পাহাড়ে ঝুলে বিশ্রাম নেওয়ার জন্য), তীব্র শীত আটকানোর মতো টুপি, পর্বতারোহীদের পোশাক, পর্বতারোহীদের গ্লাভস, চামড়ার গ্লাভস, বরফে ঢাকা পাহাড়েও জল খাওয়া যায় এমন পানীয় জলের বোতল, ধ্বসে চাপা পড়লে সঙ্কেত দেওয়ার যন্ত্র, ভাঁজ করা যায় এমন মই, তার কাটার যন্ত্র, ফেস প্রোটেক্টর,গ্লেসিয়ার হ্যাট, পার্কার জ্যাকেট - এরকম বহু পর্বতারোহনের সঙ্গে সম্পর্কিত সরঞ্জাম।

 

<p>মনে করা হচ্ছে চিনের সমর্থনে প্রচলিত পথ ছেড়ে আগামী দিনে বরফে ঢাকা পাহাড় ডিঙিয়ে জঙ্গি অনুপ্রবেশ করানোর চেষ্টা করতে পারে পাকিস্তান। তার জন্যই এই পর্বতারোহনের সামগ্রী কেনা হচ্ছে। পাক সেনাবাহিনীও কার্গিলের মতো আক্রমণ করার চেষ্টা করতে পারে।</p>

<p>&nbsp;</p>

মনে করা হচ্ছে চিনের সমর্থনে প্রচলিত পথ ছেড়ে আগামী দিনে বরফে ঢাকা পাহাড় ডিঙিয়ে জঙ্গি অনুপ্রবেশ করানোর চেষ্টা করতে পারে পাকিস্তান। তার জন্যই এই পর্বতারোহনের সামগ্রী কেনা হচ্ছে। পাক সেনাবাহিনীও কার্গিলের মতো আক্রমণ করার চেষ্টা করতে পারে।

 

<p>পূর্ব লাদাখের অনেক এলাকা থেকেই সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছে চিন। কিন্তু, কিছু এলাকার দখল নিয়ে তারা নিজেদের দাবি থেকে নড়ছে না। এই অবস্থায় অনেক সামরিক বিশেষজ্ঞই মনে করছেন, সেপ্টেম্বর মাসে পাহাড়ে শীত শুরু হয়ে গেলে, আবহাওয়ার কাঠিন্য়ের সুযোগ নিয়ে ফের হামলা চালাতে পারে চিন। গোয়েন্দাদের এই রিপোর্টের পর মনে করা হচ্ছে, সেই ক্ষেত্রে একদিকে লাদাখে পাক সেনা ও জঙ্গি অন্যদিকে লাদাখে চিনা পিএলএ - দুই ক্ষেত্রে যুদ্ধ করতে হতে পারে ভারত-কে।</p>

<p>&nbsp;</p>

পূর্ব লাদাখের অনেক এলাকা থেকেই সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছে চিন। কিন্তু, কিছু এলাকার দখল নিয়ে তারা নিজেদের দাবি থেকে নড়ছে না। এই অবস্থায় অনেক সামরিক বিশেষজ্ঞই মনে করছেন, সেপ্টেম্বর মাসে পাহাড়ে শীত শুরু হয়ে গেলে, আবহাওয়ার কাঠিন্য়ের সুযোগ নিয়ে ফের হামলা চালাতে পারে চিন। গোয়েন্দাদের এই রিপোর্টের পর মনে করা হচ্ছে, সেই ক্ষেত্রে একদিকে লাদাখে পাক সেনা ও জঙ্গি অন্যদিকে লাদাখে চিনা পিএলএ - দুই ক্ষেত্রে যুদ্ধ করতে হতে পারে ভারত-কে।

 

loader