ভারতীয় সেনাবাহিনীর তরফ থেকে শীঘ্রই সীমান্তের নিকটে অভিযানে অংশ নেবে মহিলা পাইলট। ভারতীয় সেনাবাহিনীর বিমান চলাচলে মহিলা পাইলটদের অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চলতি বছরের জুলাই মাস থেকেই শুরু হতে পারে প্রথম ব্যাচের প্রশিক্ষণ। ১৫ জানুয়ারি সেনাবাহিনী দিবসের আগে এক সংবাদ সম্মেলনে আর্মি চিফ জেনারেল এম এম নরভনে এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেছেন যে, সেনাবাহিনী বিমান চালনোয় বিমানের চালক হিসাবে মহিলাদের অন্তর্ভুক্ত করা হবে, এবং এই প্রস্তাবটি অনুমোদিত হয়েছে। 

আরও পড়ুন- দেখে নিন রাজ্য-সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বার্ড ফ্লু লেটেস্ট আপডেট

আর্মি চিফ জেনারেল এম এম নরভনে একমাস আগে সেনাবাহিনীর বিমান শাখায় মহিলাদের অন্তর্ভুক্ত করার জন্য একটি নির্দেশনা জারি করেছিলেন। বর্তমানে সেনাবাহিনীর বিমান শাখায় মহিলাদের কেবল বিমান পরিবহন নিয়ন্ত্রণ এবং গ্রাউন্ড ডিউটি ​​দেওয়া হয়। এরপর থেকে সেই নিয়মের বদল হতে চলেছে। রবর্তী কোর্স চলতি বছরের জুলাইয়ে শুরু হবে, এতে মহিলা অফিসাররাও অন্তর্ভুক্ত থাকবেন। এক বছর প্রশিক্ষণের পর উত্তীর্ণ মহিলা পাইলটরা ডিউটিতে যোগ দিতে সক্ষম হবেন।

আরও পড়ুন- স্বামী বিবেকানন্দকে কীভাবে মনে রেখেছে শিকাগো শহর, দেখুন ছবি

আর্মি এভিয়েশন কর্পস হেলিকপ্টার নিয়ে গঠিত যা দ্বন্দ্ব এবং শান্তি অঞ্চলগুলিতে উড়ে যায়। আর্মি এভিয়েশন কর্পস ১৯৮৬ সালের পয়লা নভেম্বর গঠিত হয়েছিল। কারগিলের মতো একটি অভিযানে সেনা বিমান চলাচল কর্পস ভূমিকা পালন করেছিল। শুধু তা-ই নয়, লাদাখে চলমান ভারত-চীন অচলাবস্থার সময় বিভিন্ন কাজ সম্পাদনেও এটি শীর্ষে ছিল। ভারতীয় সেনাবাহিনীর পাইলট হিসেবে মহিলারা এই প্রশিক্ষণের পর প্রথম সারিতে ডিউটি ​​করতে সক্ষম হবেন।