রাঙা আলুতে রয়েছে প্রচুর পরিমান আয়রন। এটি শরীরে শ্বেত রক্তকনিকা তৈরিতে এবং রোগ প্রতিরোধক ব্যবস্থা কার্যকর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। জানলে অবাক হবেন, রাঙা আলু খেলে মানসিক অবসাদ কমে। এই আলু খেয়ে অনেক সময় অবধি না খেয়ে থাকা যায়। এমনকি ডায়াবেটিস হলেও নিশ্চিন্তে রাঙা আলু খাওয়া যেতে পারে বলে জানিয়েছে, বিধানচন্দ্র কৃষি বিদ্যালয়ের গবেষকরা। তাঁদের মতে, এছাড়া এই আলুতে থাকা সুগার রক্তে মিশে শরীরে শক্তির ভারসাম্য বজায় রাখে। এছাড়া এই আলুতে ইনসুলিনের নিঃসরণ হতে সাহায্য করে, যা শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। 

আরও পড়ুন- স্টে হোমে থেকেই কাজে লাগান সময়, চুল পড়ার সমস্যা থেকে মুক্তি পান মাত্র ১ সপ্তাহে

অনেকেই আছেন যারা ফ্যাটের ভয়ে আলু খান না। আলু ছাড়া প্রতিদিনের কোনও রান্নাই সম্পূর্ণ নয়। কোনও তবে জানলে অবাক হবেন বিশেষজ্ঞরা ওজন কমানোর জন্য রাঙা আলু খাওয়ার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি ও হাড়কে শক্ত করে শারীরিক শক্তি যোগাতেও কার্যকর ভূমিকা পালন করে। এই আলুতে রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ। ভিটামিন বি সমৃদ্ধ মিষ্টি আলু হৃদরোগের ঝঁকিও কমায়। পাশাপাশি হৃদস্পন্দন স্বাভাবিক রাখতে এবং কিডনি সুরক্ষাতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

আরও পড়ুন- লকডাউনে ঘরে থেকেই কমিয়ে ফেলুন বাড়তি ওজন, মেনে চলুন অব্যর্থ এই ঘরোয়া টোটকা

রাঙ্গা আলুতে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিকারসিনোজেনিক উপাদান যা ক্যান্সার নিরাময়ে অত্যন্ত কার্যকরী।  এমনকী এই আলু আলসার-সহ পেটের রোগ প্রতিরোধেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এতে থাকা বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন সি ও প্রচুর পরিমান ম্যাগনেশিয়াম থাকার ফলে প্রদাহ প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি হল একটি ফাইবার সমৃদ্ধ খাদ্য, ফলে পাকস্থলী ও অন্ত্রের সমস্যার ক্ষেত্রেও সাহায্য করে। পাশাপাশি খাবার হজমেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই নিশ্চিন্তে খান রাঙা আলু আর সুস্থ থাকুন।