আড়াই প্যাচের জিলিপির মধ্যে রয়েছে হাজারো গুণ।  আর এই প্যাচের মধ্যে রয়েছে নানান রোগের সমাধান। বিভিন্ন কর্মব্যস্ততার মধ্যে নানান রোগ আমাদের শরীরে বাসা বাধে। তার মধ্যে একটি হল মাইগ্রেন। গরম গরম জিলিপি খেতেও যেমন সুস্বাদু তেমনই মাইগ্রেনের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাবেন এই গরম জিলিপি খেলে।

 


মাইগ্রেনের ব্যথা থেকে মুক্তির উপায়

 জন্ডিসের উপজীব্য এই জিলিপি। যাদের জন্ডিস হয়েছে, জন্ডিস চলাকালীন রোজ দুটি করে জিলিপি খেলে এই রোগের হাত থেকে নিস্তার পাওয়া যাবে। খালি পেটে খেলেও অনেক বেশি উপকার পাওয়া যায়।

যারা মোটা হতে চাইছেন তারা প্রতিদিন একটা করে জিলিপি খান, অনায়াসেই ওয়েট গেইন করতে পারবেন। 

পেট খালি রাখলে  মাইগ্রেনের ব্যথা বেশি বাড়ে। খালি পেটে থাকলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা যেমন বাড়ে, তেমনই মাইগ্রেনের সমস্যাও আরও বেড়ে যায়।

অতিরিক্ত রোদে ঘুরলেও মাইগ্রেন বেড়ে যেতে পারে। এছাড়াও বেশি সময় ধরে কম্পিউটারে কাজ করলে  বা একটানা  টিভি দেখলেও এই ব্যথা বাড়ে।

মাইগ্রেনের সমস্যায় যারা ভুগছেন, তারা যতটা পারবেন এগুলি এড়িয়ে চলুন। স্ট্রেস কমিয়ে চিন্তামুক্ত থাকুন।

যোগব্যায়াম, মেডিটশন করলেও মাইগ্রেনের ব্যথা  থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

অ্যাপেল সিডার ভিনিগারও ভীষণ কার্যকরী মাইগ্রেনের ব্যথায়।

মাইগ্রেনের ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে গোলমরিচ ভীষণ উপকারি। গরম জলে গোলমরিচ গুড়ো মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়।