লকডাউনে সময় কাটানো অনেকের কাছেই এক দুর্বিসহ বিষয় হয়ে উঠেছে। নেটিজেন-সহ অনেকের তাই এখন একমাত্র এবং অন্যতম উপায় হল স্মার্টফোন। তবে একটু যারা বেশি বয়সের তাঁদের মধ্যে বেশিরভাগেরই এই ঘরবন্দির সময় কাটছে টিভি দেখে। তবে সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গিয়েছে যে, দীর্ঘ সময় ধরে টিভি দেখার ফলে বৃদ্ধি পেতে পারে স্ট্রোক বা  হার্ট অ্যাটাকের মত ঝুঁকি। যা মৃত্যুর কারণও হতে পারে।

ব্রিটেনে বায়ো ব্যাংক পরিচালিত একটি গবেষণার মাধ্যমে এই তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে। এই গবেষণা করার সময় গবেষকরা ৩৭ বছর থেকে ৭৩ বছর বয়সের মধ্যে প্রায় ৪ লক্ষ ৯০ হাজার মানুষের উপর এই সমীক্ষা করা হয়েছিল। এই সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, এর মধ্যে যাঁদের টিভি দেখার প্রবণতা খুব বেশি তাঁদের মধ্যে স্ট্রোক বা  হার্ট অ্যাটাকের ফলে মৃত্যুর সম্ভাবনাও অনেক বেশি। শুধু এই নয় এঁদের মধ্যে ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি থাকে।

গবেষণা জানা গিয়েছে, কোনও ব্যক্তির  দিনে দুই ঘণ্টার বেশি সময় টিভি দেখা উচিৎ নয়। যদি দিনে সময় বেধে টিভি দেখেন তবে আপনার স্ট্রোক বা  হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা ৮ শতাংশ কমিয়ে ফেলতে পারবেন। গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা দলের প্রধান চিকিৎসক হামিশ ফস্টার বলেছেন, "আমাদের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যারা অতিরিক্ত সময় ধরে টিভি দেখেন তাঁদের মধ্যে স্বাস্থ্যের সঙ্গে সম্পর্কিত বহু সমস্যা দেখা দেয়। এদের খুব ভালো ঘুম হয় না। ফলে শারীরের দুর্বলতাও ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পায়। তাই যতটা সম্ভব টিভি দেখার সময় কমিয়ে, সেই সময়কে অন্য কাজে লাগাতে হবে। প্রতিদিন ৩০ মিনিট হাঁটাচলা করতেই হবে, তাহলেই স্ট্রোক বা  হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা ১০ শতাংশ কমিয়ে ফেলা সম্ভব।''