সন্দীপ মজুমদার, হাওড়া: বন্ধুদের ডাকে বাড়ি থেকে বেরোনোটাই কি কাল হল? পুকুর থেকে উদ্ধার হল দশম শ্রেণির ছাত্রী দেহ। মেয়েকে খুনের অভিযোগ করেছেন পরিবারের লোকেরা। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হাওড়ার সাঁতরাগাছিতে। 

আরও পড়ুন: আমফানের ত্রাণ বিলিতে 'স্বজনপোষণ', প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে ঘেরাও তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান

মৃতার নাম শ্রেয়সী ঘোষ। বাড়ি, সাঁতরাগাছির দক্ষিণ পাল পাড়ায় এলাকায়। বুধবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিল সে। বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির কাছেই একটি পুকুরে তার দেহ ভাসতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাটি জানাজানি হতেই শোরগোল পড়ে যায় এলাকায়। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, শ্রেয়সীর শরীরের একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

আরও পড়ুন: ' গণতন্ত্রের পক্ষে অশনিসংকেত', আরামবাগ টিভির সম্পাদকের গ্রেফতারিতে সরব বিশিষ্টজনেরা

প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, বুধবার রাতে যখন পরিবারের সকলে ঘুমোচ্ছিলেন, তখন পাঁচিল টপকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় শ্রেয়সী। কিন্তু কেন? পরিবারের লোকেদের, বন্ধুরাই ফোন করে ডেকেছিল এবং তারপর পরিকল্পনামাফিক খুন করে দেহটি ফেলে দেওয়া হয়েছে পুকুরে। দু'জনকেও সন্দেহ করছেন বাড়ির লোকেরা। খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে সাঁতরাগাছি থানায়। তদন্তে নেমেছে।  ঘটনার নেপথ্যে কি ত্রিকোণ প্রেম? তাও খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা।