গাছপালা, বাড়ির ছাদ, এমনকী জামা-কাপড়ও, বাদ নেই কিছুই। এলাকা জুড়ে যেন কেউ গুঁড়ো হলুদ ছড়িয়ে দিয়েছে! দু'দিনের 'বৃষ্টি'তে রীতিমতো আতঙ্ক ছড়িয়েছে হাওড়ার বাগনানে। ভয়ে বাড়ি থেকে বেরনোর সাহস পাচ্ছেন না কেউ। কোনও কোনও বাড়িতে আবার হাড়িও চড়ছে না! ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে গিয়েছেন প্রশাসনিক আধিকারিক।

আরও পড়ুন: মা গুরুতর অসুস্থ, ডাক্তার দেখানোর নাম করে স্টেশনে ফেলে পালাল ছেলে

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার। সেদিন সকাল থেকে ঝিরঝিরে 'বৃষ্টি' নামে পাতিনান, কাজীপাড়া, মণ্ডলপাড়া-সহ বাগনানের বিস্তীর্ণ এলাকায়। আর সেই 'বৃষ্টি' যখন থামে, তখনই ঘটে বিপত্তি। স্থানীয় বাসিন্দারের দাবি, এলাকার সর্বত্র হলুদ রংয়ের ছোট ছোট ফোটা দেখতে পান তাঁরা। শুধু তাই নয়, সময় যত গড়াচ্ছে, ওই ফোটাগুলি ততই শক্ত হয়ে গুঁড়ো হলুদের মতো আকার নিচ্ছে।  প্রথমে এই ঘটনাটিকে তেমন আমল দেননি স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু শুক্রবার সকালেও একই ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকায়। কেউ বলছেন, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অ্যাসিড ছোঁড়া হয়েছে, তো কারও মতে, করোনার মতোই নতুন কোনও ভাইরাস ছড়িয়েছে এলাকায়।

আরও পড়ুন: স্কুলে দেরি, শিক্ষক শিক্ষিকাদের দেড় ঘণ্টা বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখলেন গ্রামবাসীরা

জানা গিয়েছে, বাগনানের যেসমস্ত এলাকায় 'হলুদ বৃষ্টি' হয়েছে, সেখানে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করেছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা। বিডিও সত্যজিৎ বিশ্বাস জানিয়েছেন, নমুনাগুলি পরীক্ষার জন্য পরিবেশ দপ্তরের পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মানুষকে অযথা আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। তবে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েননি বলে জানা গিয়েছে।