ফের জম্মু ও কাশ্মীরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান। সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে রাজৌরি জেলার নওশেরা সেক্টরে পাকিস্তান রেঞ্জারদের ছোড়া গোলার আঘাতে শহিদ হয়েছেন সেনাবাহিনীর এক সদস্য।

মাত্র একসপ্তাহ আগেই, ১৪ নভেম্বর, গুরেজ ও উরি সেক্টরে নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর পাকিস্তানের ভারী গোলাবর্ষণের ফলে নিরাপত্তা বাহিনীর পাঁচজন জওয়ান (ভারতীয় সেনাবাহিনীর চার সদস্য, একজন বিএসএফের) এবং ছয় অসামরিক নাগরিকের প্রাণ গিয়েছিল। সেইসঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর চার সদস্য এবং আটজন অসামরিক ব্যক্তি আহতও হয়েছিলেন। তবে তার যোগ্য জবাবও দিয়েছিল ভারত। সেনা কর্তারা জানিয়েছিলেন, ভারতীয় সেনার শক্তিশালী পাল্টা হামলায় আট পাকিস্তানি সেনা নিহত এবং অন্তত ১২ জন আহত হয়েছিল। তাদের সামরিক পরিকাঠামোরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল।

আরও পড়ুন - ফের যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন, শহিদ ১ সেনা জওয়ান - মরিয়া হয়ে উঠেছে পাক সেনা

আরও পড়ুন - সামান্য কেরানি থেকে ফার্স্ট লেডির উপদেষ্টা, বাইডেন প্রশাসনে যুক্ত হলেন আরেক ভারতীয় মালা আদিগা

আরও পড়ুন - ভ্যাকসিন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক, তবে কি আর বেশি দূরে নেই কোভিডের টিকা

একসপ্তাহ পর ফের হামলা চালালো পাকিস্তান। সেনা কর্তাদের দাবি, নিরাপত্তা বাহিনীর তৎপরতায় উপত্যকায় সীমান্ত পেরিয়ে জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ এখন পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গিয়েছে। গত কয়েক মাসে চেষ্টা কম হয়নি, কিন্তু সব ক্ষেত্রেই ভারতীয় সেনা, বিএসএফ ও জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের কর্মীরা সেই চেষ্টা বানচাল করে দিয়েছেন। তার উপর উপত্যকার জঙ্গি সংগঠনগুলি এখন নেতার অভাবে ভুগছে। এই অবস্থায় পাক সেনাবাহিনী একেবারে মরিয়া হয়ে গিয়েছে। তাই ঘন ঘন যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে গোলাবর্ষণ করছে তরা।