Asianet News BanglaAsianet News Bangla

লাগবে ৪০ হাজার থেকে লক্ষাধিক টাকা, এনআরসি-তে 'নাম তুলতে' ১২০দিন সময়সীমা

  • লাগবে ৪০ হাজার থেকে লক্ষাধিক টাকা
  • এনআরসি-তে 'নাম তুলতে' ১২০দিন সময়সীমা
  • আগে এই সময়সীমা ছিল ৬০ দিন
  • আইনি লড়াইয়ে খরচ হতে পারে লক্ষাধিক টাকা
120 Days to Appeal and a Mountain of Legal Bills for those Left out of Final NRC
Author
Kolkata, First Published Aug 31, 2019, 12:51 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

অসমে নাগরিকপঞ্জী থেকে নাম বাদ পড়ায় বিপাকে পড়েছেন ১৯ লক্ষ মানুষ। রাজ্য সরকার জানিয়েছে এখনই গ্রেফতার করা হবে না তাঁদের। তবে কোন পথে মিলবে সুরাহা ?

অসমে এনআরসি থেকে বাদ পড়ে এখন চিন্তায় ঘুম ছুটেছে বহু মানুষের। তবে আসল নাগরিকদের ভয় পাওয়ার কিছু নেই বলে আশ্বস্ত করেছে সদানন্দ সনোয়ালের বিজেপি সরকার। রাজ্য় সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে , এনআরাসি তালিকা থেকে বাদ পড়লেও এখনই কাউকে বিদেশি হিসাবে ধরে নেবে না রাজ্য়। কোনওভাবেই তালিকায় নাম না থাকাদের গ্রেফতার করবে অসম পুলিশ। বিষয়টি আদালতে বিবেচ্য বলেই এটা আদালতের ওপর ছেড়েছে সরকার। তবে বাদ পড়া সবাইকে বিদেশি ট্রাইবুনালের মাধ্য়মেই নিজেদের নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে হবে বলে জানিয়েছে অসম সরকার।

আরও পড়ুন :অসমে এনআরসি-র চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হল , নাম নেই ১৯ লক্ষ মানুষের

আরও পড়ুন : উপত্যকায় ৫০০০ কর্মসংস্থানের পথে সরকার, পাঁচশোরও বেশি নিয়োগ সেনাবাহিনীতে


আগে তালিকা থেকে বাদ পড়ার ৬০ দিনের মধ্যেই নিজেদের নাগরিকত্ব প্রামাণের আবেদন করতে হত । সম্প্রতি সেই সময়সীমা বাড়িয়েছে কেন্দ্রীয সরকার। ৬০ দিনের বদলে এখন আবেদনের জন্য সর্বোচ্চ ১২০দিন অথবা চার মাস সময় পাবেন বাদ পড়ারা। তবে সরকার যাই বলুক না কেন, এই কাজ যে মাটেই সহজসাধ্য নয় তা ভালো করেই জানেন 'বহিষ্কৃতরা।' এই কাজ করতে যে বহু বছর কেটে যাবে তা ভালোভাবেই বুঝছেন তাঁরা। ইতিমধ্যেই অসমে এনআরসি থেকে বহিস্কৃতদের আইনি সাহায্য় দিতে এগিয়ে এসেছে কিছু বেসরকারি সংগঠন। এরকমই একটি সংগঠন সিটিজেন ফর জাস্টিস অ্য়ান্ড পিস। সংগঠনের অসম শাখার কো-অর্ডিনেটর জামশের আলি জানান,গত বছর ধরেই এই কাজটা করে আসছেন তাঁরা। বহিষ্কৃতদের নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে অসমের বিভিন্ন জেলায় সব মিলিয়ে ১০০ জন স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করেছেন তাঁরা। আপাতত এরাই তালিকা থেকে বাদ পড়দের কী কী নথি লাগবে, তা জোগাড় করতে বলছেন। আইনি সহায়তাও কীভাবে পাওয়া যাবে তারও পাঠ দিচ্ছে এই স্বেচ্ছাসেবকরা। তবে সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে,মূল সমস্যা তৈরি হয়েছে টাকা পয়সা নিয়ে। কারণ সুপ্রিম কোর্টে মামলা লড়তে গেলে এইসব ভোটারদের কমপক্ষে ৪০হাজার থেকে কয়েক লক্ষ টাকা খরচ হবে। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীদের টাকা জোগাতেই হিমশিম খেতে হবে তাঁদের।

আরও পড়ুন : ৬ বছরে সর্বনিম্ন, আর্থিক বৃদ্ধির হার নামল ৫ শতাংশে

আরও পড়ুন : এই মুহূর্তে দেশের সেরা দশ খবর, যাতে আপনাকে রাখতেই হবে চোখ

 
তবে শুধু সিটিজেন ফর জাস্টিস অ্য়ান্ড পিস নয় এনআরসি থেকে বাদ মুসলিমদের সাহায্য় করতে এগিয়ে এসেছে অ্যাসোসিয়েশন অব প্রোটেকশন ফর সিভিল রাইটস নামের একটি সংগঠন। এই সংগঠন মূলত মুসলিম আইনজীবীদের নিয়ে গঠিত হয়েছে। বিনামূল্যে এনআরসি থেকে বাদ পড়াদের সাহায্য় করছে এই সংগঠন। রাজ্যে যাতে এনআরসি নিয়ে আতঙ্কের পরিবেশ না তৈরি হয় তাই প্রতিটা জেলায় সহায়তা শিবির শুরু করেছে বিজেপি। পিছিয়ে থাকেনি কংগ্রেসও অসমে হারানো জমি ফিরে পেতে সক্রিয় হয়েছে তারাও।
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios