জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি ছিল কার্যতই থমথমে। কিন্তু জম্মু ও কাশ্মীরকে আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মর্যাদা দেওয়ার পর জম্মু ও কাশ্মীরকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। আর সেই মোতাবেক এবার উপত্যকার যুব সম্প্রদায়ের জন্য প্রায় ৫০,০০০ চাকরির ব্যবস্থা করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে সরকারের এক শীর্ষ কর্তার তরফে জানানো হয়েছে, নয়া চাকরিক্ষেত্র তৈরি করার একটি প্রাথমিক স্তরে পরিকল্পনা করে দেওয়া হয়েছে, যেখানে সর্বপ্রথম জম্মু ও কাশ্মীরে  সশস্ত্র বাহিনী নিয়োগই হবে কর্মসংস্থানের প্রথম সোপান।সরকারি কর্মকর্তার তরফে আরও জানানো হয়েছে যে, মোদী সরকার উপত্যকায় কর্মসংস্থানের জন্য অনেকভাবেই চেষ্টা করছে। সরকারের তরফে আরও চেষ্টা করা হয়েছে যাতে, ভারতীয় সেনায় নিয়োগ করা যায়। প্রশাসনের তরফে আরও বলা হয়েছিল, যত শীঘ্রই সম্ভব এই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা হবে। 

স্ত্রীর নাম থাকবে কি এনআরসি তালিকায়, আতঙ্কে আত্মঘাতী স্বামী

আরও পড়ুন- এইচআইভি আক্রান্ত হওয়ার খবরে প্রাণ গেল এক মহিলার, তদন্তে উঠে এল রিপোর্ট ভুয়ো

আজ এনআরসি তালিকা প্রকাশ,অসমে জারি কড়া সতর্কতা, কী আছে রাজ্যবাসীর ভাগ্যে

 

শুক্রবারই জম্মু ও কাশ্মীরে একটি পাসিং আউট প্যারেড চলাকালীন, জম্মু ও কাশ্মীর লাইট ইনফ্যান্ট্রি রেজিমেন্টাল সেন্টারে যোগ দিলেন উপত্যকার প্রায় ৫৭৫ জন যুবক। এমনই একজন শ্রীনগরের বাসিন্দা ওয়াসিম আহমেদ মীর জানিয়েছেন, তিনি এবং তাঁর পরিবার অত্যন্ত গর্বিত। ভারতীয় সেনার কাছ থেকে শারীরিক এবং মানসিক দিক থেকে অনেককিছু শেখার আছে বলেও জানান তিনি। তিনি আরও বলেন যে, তাঁর বাবাও ভারতীয় সেনায়ে কর্মরত ছিলেন, তাঁর উর্দি প্রতি মুহূর্তে তাঁকে খুবই অনুপ্রেরণা যোগায়।