বছরের প্রথম দিনেই রক্তাক্ত উপত্যকা। নৌসেরা সেক্টরে অনুপ্রবেশ রুখতে গিয়ে শহিদ হলেন দুই ভারতীয় জওয়ান।

সোনা সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোররাতে নৌসেরা সেক্টরে পাক-অধিকৃত কাশ্মীর থেকে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছিল জঙ্গিরা। নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন রাজৌরি জেলার খারি থারায়ত জঙ্গলে প্রবেশ করে জঙ্গিরা। এরপেরই সার্চ অপারেশন শুরু করে জঙ্গিরা। তল্লাশি চলাকালীন জওয়ানদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় সন্ত্রাসবাদীরা। পাল্টা জবাব দেয় ভারতীয় সেনাও। 

আরও পড়ুন: ঝুঁকি নিল না সরকার, স্বল্প সঞ্চয়ে অপরিবর্তিত থাকল সুদ

সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষ চলার সময়ই শহিদ হন দুই সেনা জওয়ান। গোটা এলাকা ঘিরে জঙ্গিদের সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে সেনা।

আরও পড়ুন: নতুন বছরের প্রথম দিনেই বাড়ল রেলের ভাড়া, এক নজরে দেখে নিন বর্ধিত ভাড়ার তালিকা

নৌসেরায় অনুপ্রবেশের জন্য পাক অধিকৃত কাশ্মীরের লঞ্চপ্যাডগুলিতে জঙ্গিদের জমায়েতের খবর পেয়েছিল ভারতীয় গোয়েন্দারা। সেইমতো অভিযানও শুরু করে সেনাবাহিনী। 

বড়দিনের রাতেও পাক হামলায় শহিদ হয়েছিলেন এক ভারতীয় জওয়ান। প্রাণ হারিয়েছিলেন তিন ভারতীয় নাগরিক। ওই দিন রাতে কাশ্মীরের উরি সেক্টরে সীমান্ত লাগোয়া গ্রাম ও ভারতীয় সেনার চেকপোস্ট লক্ষ্য করে বিনা প্ররোচনাতেই মর্টার শেলিং ও ফায়ারিং শুরু করে পাক রেঞ্জার্সরা।