সদ্য ৩৭০ ধারা বিলোপের একবছর পূর্ণ হয়েছে কাশ্মীরে। জঙ্গি সংগঠনগুলি যে উপত্যকাকে নতুন করে অশান্ত করতে চাইছে সেই খবর আগেই কেন্দ্রীয় সরকারকে দিয়েছেন গোয়েন্দারা। এই অবস্থায় গত কয়েকমাস ধরেই জম্মু ও কাশ্মীরে লাগাতার সন্ত্রাস বিরোধী অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে সেনা। গত ২৪ ঘণ্টায় উপত্যকায় ৭ জঙ্গিকে নিকেশ করেছে বাহিনী। আর এর মধ্যেই ভারত-পাক সীমান্তে এবার গুপ্ত সুড়ঙ্গের খোঁজ পেল  বর্ডার সিকিওরিটি ফোর্স। যা নিয়ে ইতিমধ্যে উপত্যকায় তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: সোপিয়ানের পর এবার পুলওয়ামা,বাহিনীর এনকাউন্টানের নিকেশ ৩ জঙ্গি, গুলির লড়াইয়ে শহিদ জওয়ানও

জম্মুর সাম্বা এলাকায় ঠিক ভারত- পাকিস্তান সীমান্তের কাঁটাতারের নিচে এদিন একটি গুপ্ত সুড়ঙ্গের খোঁজ পান বিএসএফ জওয়ানরা। পাকিস্তান থেকে এদেশ দিনের আলোয় অনুপ্রবেশের জন্যই এই সুড়ঙ্গ খোঁড়া হয়েছিল। এই সুড়ঙ্গের মাধ্যমেই জঙ্গিরা অনুপ্রবেশ করে ও ড্রাগস ও অস্ত্রশস্ত্রের চোরাচালান চলতো বলে মনে করছেন বিএসএফ আধিকারিকরা। 

 

 

যেহেতু একটি সুড়ঙ্গ খুঁজে পাওয়া গিয়েছে তাই বিএসএফ আধিকারিকরা অনুমান করছেন আশেপাশে আরও দু-তিনটে সুড়ঙ্গ থাকতে পারে। সেই কারণে চারদিকে চিরুণি তল্লাশি শুরু হয়েছে। গোটা এলাকায় অনুপ্রবেশের আরও কী কী বন্দোবস্ত রয়েছে তা খুঁজে বের করতে সর্বাত্মক অভিযান চালাচ্ছে বিএসএফ।

 সাম্বা অঞ্চলে ভারতের দিকে ৫০ মিটার এগিয়ে আসা এই টানেলটি বিএসএফ-এর টহলদারি চলাকালীন নজরে আসে  জওয়ানদের। খবর পেয়েই  বিএসএফ-এর ডিরেক্টর জেনারেল রাকেশ আস্থানা কাঁটাতারের ব্যবস্থা খতিয়ে দেখতে নির্দেশ দেন। এই ঘটনা সামনে আসতেই সীমান্তের নিরাপত্তা কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। 

 

বিএসএফ জওয়ানরা সুড়ঙ্গটি ইতিমধ্যে পরিদর্শন করেছেন।  সেখানে পাকিস্তানের ছাপ দেওয়া আটটি বালির বস্তা পাওয়া যায়। তাতে গোটা গোটা অক্ষরে করাচি লেখা ছিল। তবে যে সুড়ঙ্গের সন্ধান মিলেছে তা সম্পূর্ণ ভাবে তৈরি হয়নি। এর ভেতরে ২০ মিটার পর্যন্ত গর্ত করা হয়েছিল বলে জানিয়েছে বিএসএফ। 
সুড়ঙ্গটি অন্তত ২৫ ফুট গভীর।

বিএসএফ ও আইবি-এর বিশেষ বাহিনী গোটা এলাকায় তল্লাশি শুরু করেছে। বিএসএফ এর আধিকারিকরা বলছেন, সুড়ঙ্গটির অনুপ্রবেশের মুখ পাক সীমান্ত থেকে মাত্র ৪০০ মিটার দূরে অবস্থিত। জানা যাচ্ছে, সুড়ঙ্গ তৈরি হওয়ার সন্দেহ কয়েকদিন হল বিএসএফ আধিকারিকরা করছিলেন। কারণ কয়েকদিন হল লক্ষ্য করা যাচ্ছিল, বৃষ্টির জেরে পাক সীমান্তবর্তী এলাকায় ধস নামছিল। গুপ্ত সুড়ঙ্গের সন্তান মিলতেই বড় বড় মেশিন এনে তা বুজিয়ে দেওয়া হয়েছে। শোনা যাচ্ছে এবার লুকিয়ে থাকা সুড়ঙ্গ খুঁজতে সক্ষম এক ধরনের রেডার বসানোর প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে সীমান্তে।

আরও পড়ুন: রাফালে সজ্জিত বিমান বাহিনীর একসময় ‘মেরুদণ্ড’ ছিল এই যুদ্ধবিমান, পাকিস্তানও এর ভয়েই গুটিয়ে থাকতো

এদিতে গত শনিবার ২২ আগস্ট পঞ্জাবে ভারত-পাক সীমান্তে পাঁচ অনুপ্রবেশকারীকে গুলি করে বিএসফ। ঘটনাস্থলেই ওই পাঁচ অনুপ্রবেশকারীর মৃত্যু হয়। বিএসএফ সূত্রে জানানো হয়, তার্ন তারান জেলায় সীমান্তে টহলদারির সময় বিএসএফ এর জওয়ানরা দেখেন ক্ষেমাকর্ন বর্ডার থেকে ভারতে ঢোকার চেষ্টা করছে পাঁচ অনুপ্রবেশকারী। সঙ্গে সঙ্গেই তাদের বাঁধা দেওয়া হয়। অনুপ্রবেশকারীরা সেই বাধা না মানলে শুরু হয় গুলির লড়াই। তাতেই নিকেশ হয় ওই পাঁচ অনুপ্রবেশকারী।